মাংসের মাঝে মুরগির বুকের মাংস সবচেয়ে ভালো। ছবি: প্রিয়.কম

ওজন কমাতে সবচেয়ে উপকারী ১০ খাবার

উচ্চ মাত্রায় প্রোটিন রয়েছে এমন খাবার খাওয়া জরুরি এ সময়ে।

কে এন দেয়া
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২৫ জুন ২০১৮, ১২:২২
আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ১৭:৩২


মাংসের মাঝে মুরগির বুকের মাংস সবচেয়ে ভালো। ছবি: প্রিয়.কম

(প্রিয়.কম) ওজন কমাতে গিয়ে অনেকেই ভাবেন, দিনে কোনোমতে ১০০০ ক্যালরির মাঝে খাওয়া-দাওয়া সীমাবদ্ধ রাখলেই হবে। আসলে কিন্তু তা নয়! বরং উচ্চ মাত্রায় প্রোটিন রয়েছে এমন খাবার খাওয়া জরুরি এ সময়ে। এতে যেমন পুষ্টি পাওয়া যায়, তেমনি লম্বা সময় পেট ভরা থাকে।

ওজন কমানোর সময়ে যে প্রোটিনযুক্ত খাবারগুলো সবচাইতে ভালো কাজে দেয় সেগুলো হলো-

ডিম

ডিম

ডিমের বিষয়ে একেক জন একেক মত দেন। কেউ ভাবেন ডিম খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য খারাপ। কেউ আবার নিয়মিত ডিম খাওয়ার পক্ষপাতী। তবে একটি সেদ্ধ ডিমে ছয় গ্রামের মতো প্রোটিন থাকে। সকালের নাশতায় ডিম খেয়ে সারাদিনে পেট ভরা থাকে। তেল ছাড়া ডিম সেদ্ধ, বেক বা ফ্রাই করলে তা স্বাস্থ্যকর খাবার হিসেবেই খেতে পারেন।

স্যামন মাছ

মাছে অনেকটা প্রোটিন থাকে। তিন আউন্সের এক টুকরো স্যামন মাছে ২২ গ্রাম প্রোটিন এবং সাত গ্রাম ফ্যাট থাকে। একে রান্নাও করা যায় বেশ মুখরোচক উপায়ে।

বোনলেস, স্কিনলসে চিকেন ব্রেস্ট

মাংস খেতে চাইলে মুরগির বুকের মাংসের চেয়ে ভালো আর কিছু হয় না। এতে মোটামুটি ২৬ গ্রাম প্রোটিন এবং মাত্র ১২৮ ক্যালরি থাকে। একেও বিভিন্ন উপায়ে রান্না করা যায়। অনেকে চিকেন ব্রেস্ট দিয়ে স্টেক তৈরি করে খান। তবে এই স্টেকের সাথে আবার তেলতেলে ফ্রাই বা চিপস খাবেন না যেন। আলু যদি খেতেই চান তবে বেক করে নিতে পারেন।

ডাল এবং বিনস

শুধু প্রাণীজ আমিষ নয়, উদ্ভিজ্জ আমিষও ওজন কমাতে সহায়ক। যারা নিরামিষভোজী তারা ডাল এবং সিম বা বিনস খেয়ে ওজন কমাতে পারেন। শুধু তাই নয়, এসব খাবারে বেশি পরিমাণে খাদ্য আঁশ বা ফাইবার থাকায় আপনার পেটের সমস্যাও থাকবে না।

সয়াজাত খাদ্য

টোফু, টেম্পেহ এ ধরনের সয়াজাত পণ্যে বেশি পরিমাণে প্রোটিন থাকে বলে তারা ওজন কমাতে বেশ কার্যকর।

ছানা বা কটেজ চীজ

এক কাপ ছানায় ২৮ গ্রাম প্রোটিন এবং মাত্র ১৬৩ ক্যালরি রয়েছে। ফলে ওজন কমাতে নির্দ্বিধায় খেতে পারেন ছানা। মুখরোচক করে তুলতে ছানার সাথে যোগ করতে পারেন মধু এবং ফল।

গ্রিক ইয়োগার্ট

সাধারণ দইয়ের চাইতে ঘন গ্রিক ইয়োগার্ট। এর এক কাপে রয়েছে ২৪ গ্রাম প্রোটিন। এই দই আপনি সকালের নাশতায় বা দুপুরে খেতে পারেন। তা দিয়ে সালাদ তৈরি করেও খেতে পারেন।

বাদাম

বাদাম এবং শস্যদানা

বিভিন্ন ধরনের বাদাম ও শস্যদানার মিশ্রণ খেতে দারুণ মজাদার। এতে প্রোটিন এবং স্বাস্থ্যকর ফ্যাটও থাকে প্রচুর পরিমাণে। হুট করে খিদে লেগে গেলে জাংক ফুড না খেয়ে বরং এই বাদাম ও শস্য খেতে পারেন। এক আউন্স বাদামে চার থেকে সাত গ্রাম পর্যন্ত প্রোটিন থাকতে পারে।

শাক ও কপি

পালং শাক, পাতাকপি এবং ব্রকোলি প্রোটিনের দারুণ উৎস। এগুলো খাদ্য আঁশে ভরপুর বলে পেট ভরা থাকে লম্বা একটা সময়। আর এগুলো থেকে খনিজ এবং ভিটামিনও পাওয়া যায় যথেষ্ট।

অ্যাসপারাগাস

বিভিন্ন খাবারের সাথে সাইড ডিশ হিসেবে হালকা ভাজা বা সেঁকে নেওয়া অ্যাসপারাগাস দারুণ সুস্বাদু। এক কাপ অ্যাসপারাগাসে রয়েছে ২.৯ গ্রাম প্রোটিন।

ওজন কতটা কমাতে চান, আপনার শরীরের ধরণ কেমন এবং কী ব্যায়াম করছেন তার ওপর নির্ভর করে প্রোটিনযুক্ত খাবার খাওয়া জরুরি। ফাস্ট ফুড বা জাংক ফুড বাদ দেওয়া, বেশি করে প্রোটিন খাওয়া, পরিচ্ছন্ন জীবনযাপন করা এবং নিয়মিত ব্যায়াম করার পাশাপাশি ডাক্তারের পরামর্শ মতো চলা উচিত।

সূত্র: Popsugar

প্রিয় লাইফ/গোরা 

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
স্পন্সরড কনটেন্ট
ওজন কমানো ভিনিগার গ্রহণে যত নিয়ম!
ওজন কমানো ভিনিগার গ্রহণে যত নিয়ম!
সময় টিভি - ৩ দিন, ২ ঘণ্টা আগে
শীতে স্বাস্থ্য সুরক্ষায় ৫ খাবার
শীতে স্বাস্থ্য সুরক্ষায় ৫ খাবার
দৈনিক সিলেট - ৪ দিন, ২ ঘণ্টা আগে
যৌবন ধরে রাখবে যেসব খাবার
যৌবন ধরে রাখবে যেসব খাবার
যুগান্তর - ৪ দিন, ৯ ঘণ্টা আগে
যেসব খাবার আপনার বয়স কমিয়ে দেবে!
যেসব খাবার আপনার বয়স কমিয়ে দেবে!
জাগো নিউজ ২৪ - ৪ দিন, ১৪ ঘণ্টা আগে
ওজন কমাতে ফুলকপি
ওজন কমাতে ফুলকপি
নয়া দিগন্ত - ৪ দিন, ১৮ ঘণ্টা আগে