প্রতীকী ছবি

মাদরাসাছাত্রীর বাল্যবিয়ে ঠেকাল প্রশাসন

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাজীব কুমার সরকার ও নকলা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খান আবদুল হালিম সিদ্দিকীর নির্দেশে বিয়েটি বন্ধ করা হয়।

সানী ইসলাম
কন্ট্রিবিউটর, শেরপুর
প্রকাশিত: ১২ এপ্রিল ২০১৮, ১৯:০৬ আপডেট: ১৭ আগস্ট ২০১৮, ১৬:০১
প্রকাশিত: ১২ এপ্রিল ২০১৮, ১৯:০৬ আপডেট: ১৭ আগস্ট ২০১৮, ১৬:০১


প্রতীকী ছবি

(প্রিয়.কম) শেরপুরেনকলায় দশম শ্রেণির এক মাদ্রাসাছাত্রীর (১৫) বাল্যবিয়ে আটকে দিয়েছে প্রশাসন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাজীব কুমার সরকার ও নকলা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খান আবদুল হালিম সিদ্দিকীর নির্দেশে বিয়েটি বন্ধ করা হয়।

১২ এপ্রিল, বৃহস্পতিবার দুপুরে ছাত্রীর অভিভাবকের সঙ্গে কথা বলে বিয়েটি বন্ধ করে পুলিশ।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চিথলিয়া এলাকার দশম শ্রেণির এক মাদ্রাসাছাত্রীর সঙ্গে পাশ্ববর্তী নালিতাবাড়ী উপজেলার মুন্নার বিয়ের আয়োজনের প্রস্তুতি চলছিল। ১৩ এপ্রিল শুক্রবার বিয়েটি হওয়ার কথা ছিল।

১৮ বছর পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত মেয়েকে বিয়ে দেবেন না বলে মেয়ের বাবা-মা অঙ্গীকারও করেন।

ইউএনও রাজীব কুমার সরকার প্রিয়.কমকে বলেন, ‘চলতি বছরের জেলার প্রথম উপজেলা হিসেবে নকলাকে বাল্যবিবাহ মুক্ত ঘোষণা করা হবে। তাই বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা নেওয়া হয়েছে। এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।’

প্রিয় সংবাদ/হাসান/রিমন

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...