ছবি: সংগৃহীত

রেলপথে প্রতিবন্ধীদের ভোগান্তি

ইন্দোনেশিয়া থেকে আসা ২৫টি বিশেষ বগি আনা হয়েছে। বর্তমানে ১০টি ট্রেনে ২০টি বগি লাগানো হয়েছে। ব্রডগেজ এবং মিটারগেজ ট্রেন হওয়ায় কমলাপুর স্টেশনে কোনো নির্ধারিত র‌্যাম কিংবা সিঁড়ি করা হয়নি প্রতিবন্ধী মানুষের জন্য। এটা সত্যিই দুঃখজনক।

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ২৯ মে ২০১৭, ১৪:৩৩ আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৮, ১৫:১৭


ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়কম) রেলপথে সব শ্রেণির যাত্রীদের কাছে ভ্রমণ আরামদায়ক হলেও প্রতিবন্ধীদের বেলায় একেবারেই উল্টো। দেশের ১০ শতাংশ মানুষ প্রতিবন্ধী। কিন্তু তাদের জন্য স্থল, নৌ ও রেলপথে চলাচলের বিশেষ ব্যবস্থা নেই। ফলে ট্রেন সাধারণ মানুষের গণপরিবহন হলেও প্রতিবন্ধী মানুষরা চরমভাবে বঞ্চিত হচ্ছেন বলে জাতীসংঘের সর্বশেষ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। 

জানা গেছে, নতুন আধুনিক ট্রেনগুলোতে প্রতিবন্ধীবান্ধব বগি এবং পর্যাপ্ত পরিসেবা দেয়ার ব্যবস্থা থাকলেও তা কার্যকর করা হচ্ছে না। রেলপথমন্ত্রীকেও বিষয়টি জানানো হচ্ছে না। এ বিষয়ে মানা হচ্ছে না মন্ত্রীর নির্দেশনাও।  

রেলপথ বিভাগ ও মন্ত্রণালয় সূত্রমতে, ২০১৫ সালে ভারত ও ইন্দোনেশিয়ার সঙ্গে ২৭০টি যাত্রীবাহী কোচ কেনার চুক্তি হয়। ২০১৬ সালের জানুয়ারি থেকে ভারত থেকে কেনা ১২০টি বগি রেলওয়ে বহরে যোগ হয়। কিন্তু এসব বগিতে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের কোনো বিশেষ সুযোগ-সুবিধা ছিল না। পরে অর্থ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগ এবং বিভিন্ন উন্নয়ন সংগঠনের দাবির মুখে ইন্দোনেশিয়া থেকে ১৫০টি বগির মধ্যে ২৫টি বিশেষ বগি কেনার সিদ্ধান্ত হয়।

প্রতিবন্ধী নারী জাতীয় পরিষদের সভাপতি নাছিমা আক্তার রেলপথমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে জানান, বিশেষ বগি আনা হলেও কেন তাদের যাতায়াতের জন্য উপযোগী করা হচ্ছে না। উপযোগী করা হলে প্রতিবন্ধী নারীসহ সব বয়সীরা ভ্রমণ করতে পারত। 

কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন ম্যানেজার সিতাংশু চক্রবর্তী জানান, ইন্দোনেশিয়া থেকে আসা ২৫টি বিশেষ বগি আনা হয়েছে। বর্তমানে ১০টি ট্রেনে ২০টি বগি লাগানো হয়েছে। ব্রডগেজ এবং মিটারগেজ ট্রেন হওয়ায় কমলাপুর স্টেশনে কোনো নির্ধারিত র‌্যাম কিংবা সিঁড়ি করা হয়নি প্রতিবন্ধী মানুষের জন্য। এটা সত্যিই দুঃখজনক। 

তিনি আরও জানান, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা ৫০ শতাংশ কম মূল্যে টিকিট কাটতে পারছে। তাদের উপযোগী স্টেশন, প্লাটর্ফম এবং ট্রেনগুলোতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে বলেও তিনি জানান। 

মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, সম্প্রতি চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন প্লাটর্ফমে ‘টেকটাইল’ চিহ্ন বসানো হয়েছে। ফলে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা প্লাটর্ফমে একাই চড়তে পারেন, কিন্তু নির্ধারিত স্থানে গোলচিহ্ন বিশিষ্ট ‘স্টপ’ চিহ্ন না থাকায় তারা একা ট্রেনে উঠতে পারছেন না।

সূত্র: যুগান্তর
প্রিয় সংবাদ/ইতি/আশরাফ

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
বাহুব‌লে নয়, খালেদা জিয়া জন‌প্রিয়তায় ব‌লীয়ান: নুরুল কবির
মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক ১৯ নভেম্বর ২০১৮
কুষ্টিয়ায় গুলিতে ‘ডাকাত’ নিহত
কাঞ্চন কুমার ১৯ নভেম্বর ২০১৮
সমাপনীর প্রথম দিনে অনুপস্থিত দেড় লাখ
প্রিয় ডেস্ক ১৮ নভেম্বর ২০১৮
খালেদা জিয়া খালাস চাইলেন যেসব যুক্তিতে
আমিনুল ইসলাম মল্লিক ১৮ নভেম্বর ২০১৮
যশোরে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু
প্রিয় ডেস্ক ১৮ নভেম্বর ২০১৮
স্পন্সরড কনটেন্ট
প্রতিবন্ধী কোটা পুনর্বহালের দাবি
প্রতিবন্ধী কোটা পুনর্বহালের দাবি
https://www.banglanews24.com/ - ৩ সপ্তাহ আগে
প্রতিবন্ধী বলে আমাকে দূরে রেখো না
প্রতিবন্ধী বলে আমাকে দূরে রেখো না
যুগান্তর - ৪ সপ্তাহ আগে