(প্রিয়.কম) বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গা নারীদের মধ্যে সাত হাজারের বেশি নারী সন্তানসম্ভবা বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। তিনি বলেন, ‘রোহিঙ্গারা ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছে। তারা চরম মানবেতর জীবন-যাপন করছে।’

১৭ সেপ্টেম্বর রোববার বিকেলে সচিবালয়ে রোহিঙ্গা পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দিয়ে তারা রোহিঙ্গাদের উদ্বাস্তু করে দিচ্ছে। জীবন বাঁচাতে তারা সীমান্ত পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিচ্ছে। আমরা মানবিক কারণে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় ও সাহায্য দিচ্ছি। রোহিঙ্গাদের নিজ ভূখণ্ডে পুনর্বাসন করাই এর একমাত্র সমাধান।’

রোহিঙ্গারা নাগরিত্ব নিয়েই নিজ দেশে পুনবার্সিত হতে পারবে বলে আশা প্রকাশ করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রী এ বিষয়টি জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সংস্থার কাছেও তুলে ধরছেন।

রোহিঙ্গাদের পরিস্থিতি তুলে ধরে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘শরণার্থী শিবিরে জীবন কেমন কাটে তা আমরা বেশ ভালো করে জানি। ১৯৭১ সালে আমরাও শরণার্থী হিসেবে এক কোটিরও বেশি মানুষ ভারতে আশ্রয় নিয়েছিলাম। কক্সবাজারে আমরা রোহিঙ্গাদের ত্রাণ দিচ্ছি। সাধ্যমতো চিকিৎসা সেবা দিচ্ছি। কিন্তু শিশু, নারী ও বয়স্কো লোকদের করুণ অবস্থা দেখলে মনটা ভীষণ ভারী হয়ে যায়। বিশেষ করে শিশু কিশোরদের করুণ চাহনি কোনোভাবেই সহ্য করার মতো নয়। এ পরিস্থিতি অত্যন্ত বেদনাদায়ক।’

প্রিয় সংবাদ/সজিব