জাতীয় পার্টি, সিপিবি ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রতীক

জামানত হারালেন খুলনা সিটি নির্বাচনের তিন প্রার্থী

সেই হিসাবে জামানত টিকিয়ে রাখতে প্রত্যেককে ২১ হাজারের বেশি ভোট পেতে হতো।

আবু আজাদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১৬ মে ২০১৮, ১৮:১১ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ০৪:০০


জাতীয় পার্টি, সিপিবি ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রতীক

(ইউএনবি) সদ্য অনুষ্ঠিত খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে তিন প্রার্থী জামানত হারিয়েছেন।

এর মধ্যে ১৪ হাজার ৩৬৩ ভোট পেয়ে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত মাওলানা মুজ্জাম্মিল হক (হাতপাখা) তৃতীয় অবস্থানে, ১ হাজার ৭২ ভোট পেয়ে জাতীয় পার্টি মেয়র প্রার্থী শফিকুর রহমান মুশফিক (লাঙল) চতুর্থ ও ৫৩৪ ভোট পেয়ে সিপিবির মেয়র প্রার্থী মো. মিজানুর রহমান বাবু (কাস্তে) পঞ্চম অবস্থান অধিকার করেছেন।

নির্বাচনে ১ লাখ ৭৬ হাজার ৯০২টি ভোট পেয়ে জয় নিশ্চিত করেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী তালুকদার আবদুল খালেক। আর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু ১ লাখ ৮ হাজার ৯৫৬ ভোট পান।

নির্বাচনে ৩ লাখ ৬ হাজার ৬৩৬ জন তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। এর মধ্যে ৬ হাজার ৫৬৫টি ভোট বাতিল হয়েছে। ২৮৯টি কেন্দ্রের মধ্যে ২৮৬টি কেন্দ্রের ফলাফলের ভিত্তিতে এ তথ্য পাওয়া গেছে। তিনটি কেন্দ্রের ফলাফল ঘোষণা স্থগিত রয়েছে।

স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) নির্বাচন বিধিমালা-২০১০-এর ৪৪ বিধির ৩ উপবিধি অনুযায়ী, ভোটগ্রহণ বা ভোট গণনা শেষ হওয়ার পর যদি দেখা যায় কোনো প্রার্থী সংশ্লিষ্ট নির্বাচনে প্রদত্ত ভোটের ৮ শতাংশ পেতে ব্যর্থ হয়েছেন, তাহলে তার জামানতের টাকা সরকারের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত হয়। সেই হিসাবে জামানত টিকিয়ে রাখতে প্রত্যেককে ২১ হাজারের বেশি ভোট পেতে হতো।

অথচ ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, জাতীয় পার্টি ও সিপিবির প্রার্থীরা কেউই ওই পরিমাণ ভোট পাননি। এতে তাদের প্রত্যেকেই নির্বাচনে জামানত হারিয়েছেন।

প্রিয় সংবাদ/শান্ত 

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
বিএনপি নেতাদের কে কোথায় ঈদ করবেন
মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক ২১ আগস্ট ২০১৮
কে কোথায় ঈদ করছেন ২০ দলীয় জোটের নেতারা
মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক ২১ আগস্ট ২০১৮
এবারও কারাগারেই কাটছে খালেদা জিয়ার ঈদ
মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক ২১ আগস্ট ২০১৮
দীর্ঘ যানজটের ফাঁদে ঘরমুখো মানুষ
হাসান আদিল ২১ আগস্ট ২০১৮
স্পন্সরড কনটেন্ট