(পবিত্র তালুকদার, চাটমোহর, পাবনা) পাবনার চাটমোহরে চলনবিলে নৌকায় বেড়াতে গিয়ে শিশুসহ প্রাণ হারালেন একই পরিবারের তিনজন। আহত হয়েছেন দুই জন।

০৩ সেপ্টম্বর রোববার বেলা তিনটার দিকে এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। মৃত ব্যক্তিরা হলেন- পাবনা সদর উপজেলার রানীগ্রামের মৃত আফসার আলীর ছেলে আফজাল হোসেন (৪৫), তার ভাই একই গ্রামের টেবুনিয়া শামসুল হুদা ডিগ্রি কলেজের সহকারি অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন (৪০) এবং তার ছেলে সোহান (১১)। আহত দুই জনের নাম পাওয়া যায়নি।

প্রত্যক্ষ্যদর্শীরা জানান, পরিবারের অন্য সদস্যরা নৌকার ভেতরে বসে থাকলেও ছাদে (ছই) বসে ছিলেন পাঁচ জন। বিলে পানি বৃদ্ধির কারণে বিদ্যুতের ১১ হাজার ভোল্টের তারের সঙ্গে ধাক্কা লেগে ছাদে বসা পাঁচজন বিদ্যুতায়িত হয়ে পানিতে পড়ে যায়। পরে দুই জনকে উদ্ধার করা গেলেও তিন জন পানিতে তলিয়ে যায়। পরে ঘণ্টা খানেকের চেষ্টায় এলাকাবাসীরা মৃত অবস্থায় তিনজনকে উদ্ধার করেন।

পরিবারের বরাত দিয়ে চাটমোহর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. শরিফুল ইসলাম জানান, মাইক্রোবাস ও মোটর সাইকেল যোগে দুপুরে একই পরিবারের ১৫/২০ জন সদস্য চলনবিল ভ্রমণের উদ্দেশ্যে চাটমোহরে বেড়াতে এসে উপজেলার ছাইকোলা বাজার এলাকা থেকে একটি নৌকা ভাড়া করে তারা চলনবিলে নৌ-ভ্রমণে বের হন। বেলা তিনটার দিকে হান্ডিয়াল ইউনিয়নের চরকাজীপুর জিওলগাড়ি বিলে নৌকার ছাদে থাকা পাঁচ জন বৈদ্যুতিক তারের সঙ্গে ধাক্কা লেগে বিদ্যুতায়িত হয়ে পানিতে পড়ে যান। নৌকার মাঝি ও স্বজনরা দুই জনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করতে পারলেও তিন জন পানিতে তলিয়ে যায়। পরে তাদের চিৎকারে এলাকাবাসীরা প্রায় ঘণ্টা খানেকের চেষ্টায় তিনজনের লাশ উদ্ধার করে।

পরিবারের কোন অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানান ওসি।

ঈদের আনন্দে বেড়াতে গিয়ে একই পরিবারের তিনজনের মৃত্যুতে এলাকাবাসী ও স্বজনদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

প্রিয় সংবাদ/কামরুল