জাতীয় সংসদ অধিবেশন। ফাইল ছবি

২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট পাস

বাজেটে বড় ধরনের কোনো পরিবর্তন হবে না বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

আয়েশা সিদ্দিকা শিরিন
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২৮ জুন ২০১৮, ১৪:১২ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ১৫:১৬
প্রকাশিত: ২৮ জুন ২০১৮, ১৪:১২ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ১৫:১৬


জাতীয় সংসদ অধিবেশন। ফাইল ছবি

(প্রিয়.কম) ২০১৮-১৯ অর্থবছরের ৪ লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকার বাজেট জাতীয় সংসদে পাস হয় আজ। ১ জুলাই থেকে কার্যকর হবে এ বাজেট।

২৮ জুন, বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা ১০মিনিটে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে দশম জাতীয় সংসদের ২১তম (বাজেট) অধিবেশন পুনরায় শুরু হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ নেতা শেখ হাসিনা, বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতসহ অন্য মন্ত্রী ও সংসদ সদস্যরা সংসদে উপস্থিত রয়েছেন।

অধিবেশনের শুরুতে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় এবং বিভাগের মঞ্জুরি দাবিগুলো সংসদে পেশের আহ্বান জানান স্পিকার। পরে সংশ্লিষ্ট বিভাগের মন্ত্রীরা পর্যায়ক্রমে দাবিগুলো পেশ করেন। সেগুলো সর্বসম্মতিক্রমে পাস হয়।

২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে ব্যয়ের বিপরীতে মোট রাজস্ব আয় প্রাক্কলন করা হয়েছে ৩ লাখ ৩৯ হাজার ২৮০ কোটি টাকা, যা জিডিপির ১৩ দশমিক ৪ শতাংশ।

এতে আয়-ব্যয়ের ঘাটতি দাঁড়াবে ১ লাখ ২৫ হাজার ২৯৩ কোটি টাকা, যা জিডিপির ৪ দশমিক ৯ শতাংশ।

অনুন্নয়নসহ অন্যান্য খাতে মোট বরাদ্দ রাখা হয়েছে ২ লাখ ৯১ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকা (জিডিপি’র ১১.৫ শতাংশ) এবং বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে বরাদ্দ ধরা হয়েছে ১ লাখ ৭৩ হাজার কোটি টাকা।

এর আগে গত ২৬ জুন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত সাংবাদিদের জানিয়েছিলেন, বাজেটে বড় ধরনের কোনো পরিবর্তন হবে না। কর্পোরেট ট্যাক্সে পরিবর্তন আনার তেমন কোনো সম্ভাবনা নেই।

গত ৭ জুন জাতীয় সংসদ ভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বিশেষ বৈঠকে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট অনুমোদন দেওয়া হয়।

একই দিন দুপুরে সংসদ অধিবেশনে ৪ লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকার এ বাজেট পেশ করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

প্রিয় সংবাদ/গোরা