(প্রিয়.কম) জনপ্রিয় ব্যান্ড শিরোনামহীনের সাবেক প্রধান ভোকাল তুহিন আজ ১২ অক্টোবর বিকাল ৪টার দিকে তার ভ্যারিফায়েড পেজ থেকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন যেখানে তিনি শিরোনামহীন ব্যান্ড মেম্বার ও পরিবারবর্গের কাছে দু:খ এবং অনুশোচনা প্রকাশ করেছেন। এর কারণ হিসেবে উল্লেখ করেছেন, ‘যারা বিগত কয়েকদিন অমানুসিক দু:খ ও কষ্ট ভোগ করছেন, তার বক্তব্যের প্রেক্ষিতে।’

স্ট্যাটাসটি হল-‘আমি শিরোনামহীন ব্যান্ড মেম্বার ও পরিবারবর্গের কাছে দু:খ এবং অনুশোচনা প্রকাশ করছি, যারা বিগত কয়েকদিন অমানুসিক দু:খ ও কষ্ট ভোগ করছেন,আমার বক্তব্যের প্রেক্ষিতে।’

‘আমি শিরোনামহীনের সকল শ্রোতা, ভক্ত, বন্ধু এবং মিডিয়াকেও অনুরোধ করছি, আপনারা বিগত সময়গুলোতে যে ভাবে শিরোনামহীন ব্যান্ডের পাশে থেকে সুখ, দু:খ, আনন্দে সাহস ও অনুপ্রেরণা দিয়েছেন, সেভাবে আগামী সময়গুলোতেও পাশে থাকবেন। আপনাদের ভালবাসার জন্যই এই মানুষগুলো শিরোনামহীন।’

‘শিরোনামহীন এর কাছে কৃতজ্ঞ,বিগত বছরের পথ চলায় তারা আমাকে যে ভালবাসা ও সুযোগ দিয়েছে গান গাওয়ার ,তা আমার বাকী জীবনটাকে এগিয়ে নিতে উৎসাহ ও প্রেরণা যোগাবে। শিরোনামহীন এর সুন্দর ও সফল ভবিষ্যৎ এর কামনায়।’

তুহিন এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন,‘ব্যান্ডের সদস্যদের আচরণে আমি খুবই কষ্ট পেয়েছি। আমি যখন অসুস্থ, আমাকে সুস্থ করার জন্য আমার পরিবার ছুটছে, তখন ব্যান্ডের সদস্যদের কাছে বন্ধুত্বের চেয়ে টাকা মুখ্য হয়ে যায়।’ তার এই বক্তব্যে শিরোনামহীনের অন্যান্য সদস্যরা খুবই মর্মাহত হয়েছেন।

এদিকে হঠাৎ করেই শিরোনামহীন ছাড়ার ঘোষণা দিয়ে গত ৬ অক্টোবর শুক্রবার সন্ধ্যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিজের অ্যাকাউন্ট ও ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে ব্যান্ড ছাড়ার বিষয়টি সবাইকে জানান। আর স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন, ‘আমি তানযীর তুহীন,ব্যক্তিগত কারণে শিরোনামহীন ছাড়ছি, কিন্তু গান নয়।’ এরপর জল গড়িয়েছে বহুদূর...সে বিষয়গুলো সবারই কম বেশি জানা রয়েছে।

গত ২১শে সেপ্টেম্বর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন তুহিন। সে সময় ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) ভর্তি ছিলেন। তার হার্টের রক্তনালীতে ছোট্ট একটা ব্লক পাওয়া গেছে। তবে অস্ত্রোপচার লাগেনি। চিকিৎসক বলেছেন ওষুধেই ঠিক হয়ে যাবে। তবে এক মাস চিকিৎসকের পরামর্শে চলতে হবে তাকে।

প্রিয় বিনোদন/গোরা