‘স্মার্ট ওয়াচ’ পরেই মাঠে নামেন দুই পাকিস্তানি ক্রিকেটার। ছবি: সংগৃহীত

এবার পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের ‘স্মার্ট ওয়াচ’ কেলেঙ্কারি

২২ গজের লড়াইয়ে ছল-চাতুরীর আশ্রয় নেওয়ার ঘটনায় বরাবরই এগিয়ে পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা।

সৌরভ মাহমুদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২৫ মে ২০১৮, ১৪:১৬ আপডেট: ১৭ আগস্ট ২০১৮, ২২:০১


‘স্মার্ট ওয়াচ’ পরেই মাঠে নামেন দুই পাকিস্তানি ক্রিকেটার। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) পাকিস্তানের ক্রিকেট মানেই যেন কেলেঙ্কারির ডিপো! দুর্নীতি, ম্যাচ ফিক্সিং, মাদক, নারী কেলেঙ্কারি—এ সবকিছুর কল্যাণেই বারবার সংবাদ শিরোনামে উঠে এসেছেন পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা। তা ছাড়া ২২ গজের লড়াইয়ে ছল-চাতুরীর আশ্রয় নেওয়ার ঘটনায়ও বরাবরই এগিয়ে পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা।

তেমনই এক ঘটনায় আবারও তোলপাড় ক্রিকেট দুনিয়া

ঘটনা লর্ডস টেস্টের। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্টের প্রথম দিন দুই পাকিস্তানি ক্রিকেটার আসাদ শফিকবাবর আজম ‘স্মার্ট ওয়াচ’ পরেই মাঠে নেমে যান। ‘স্মার্ট ওয়াচ’ দ্বারা শুধু সময় দেখাই নয়, এর মাধ্যমে দূরের যে কারোর সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন করা সম্ভব। খেলা চলাকালীন মাঝে মাঝেই তাদের সেই ঘড়ি ব্যবহার করতে দেখা গেছে। 

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থার নিয়ম-নীতিতেও স্পষ্ট উল্লেখ রয়েছে, যেকোনো ধরনের কমিউনিকেশন ডিভাইস মাঠ এবং ড্রেসিংরুম এরিয়াতে বহন করা যাবে না। কিন্তু নিজেদের হাতে স্মার্ট ঘড়ি পরে আইসিসির ওই নিয়মকে বুড়ো আঙুলই দেখিয়েছেন বাবর ও আজম। 

ঘটনাটি দৃষ্টি এড়ায়নি ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের দুর্নীতি দমন ইউনিটের। এ জন্য দিনের খেলা শেষে বাবর ও আজমকে আইসিসির তরফ থেকে মৌখিকভাবে তিরস্কার করা হয়েছে এবং ওই দুই ক্রিকেটারসহ পুরো পাকিস্তান দলকে পরবর্তীতে আর এমন কোনো ডিভাইস সঙ্গে বহন করতে বারণ করা হয়েছে। 

আসাদ শফিক ও বাবর আজম হাতে স্মার্ট ঘড়ি। ছবি: সংগৃহীত

আসাদ শফিক ও বাবর আজমের হাতে স্মার্ট ঘড়ি। ছবি: সংগৃহীত

মজার ব্যাপার, বাবর আজম ও আসাদ শফিক যে ‘স্মার্ট ওয়াচ’ পরে মাঠে নেমেছেন, তা নাকি দলের বাকি সদস্যরা জানতেনই না। এমন দাবি পেসার হাসান আলীর। প্রথম দিনের খেলা শেষে সংবাদ সম্মেলনে এই ডানহাতি পেসার বলেন, ‘আমি জানতামই না যে আমাদের মধ্যে কেউ এটি (স্মার্ট ঘড়ি) পরেছে। তবে হ্যাঁ, আইসিসির দুর্নীতি দমন কর্মকর্তা আমাদের কাছে এসে বলে গেছে যে এমন ঘড়ি পরার নিয়ম নেই।  পরবর্তীতে যেন আর কেউ এই ঘড়ি পরে মাঠে না নামে।’

‘স্মার্ট ওয়াচ’ কেলেঙ্কারির জন্ম দিলেও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে লাল বলের লড়াইয়ে আধিপত্য বিস্তার করছে পাকিস্তানই। টস জিতে আগে ব্যাট করতে নামা ইংল্যান্ডকে মাত্র ১৮৪ রানেই গুটিয়ে দেয় সফরকারীরা।  জবাবে প্রথম দিন শেষে স্বাগতিকদের চেয়ে ১৩৪ রানে পিছিয়ে আছে পাকিস্তান, হাতে আছে ৯টি উইকেট।

প্রিয় খেলা/আজাদ চৌধুরী

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
ট্রেন্ডিং