(প্রিয়.কম) সব কিছুতেই নাক গলান বীরেন্দর শেবাগ- ভারতের সাবেক ব্যাটসম্যানকে নিয়ে এমন অভিযোগ অনেক দিনের। যদিও কিছুদিন আগে ভারতের উত্তর প্রদেশের একটি সরকারি হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে ৬০টি শিশুর প্রাণ হারানোর বিষয়ে মুখ খুলতে দেখা যায়নি তাকে। আবার চুপ করেও থাকেননি সাবেক এই ভারতীয় ওপেনার।

শিশু মৃত্যুর এই ঘটনা নিয়ে টুইটারে অনেকটা সরকারের সমর্থনে কথা বলেছেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। কিন্তু টুইট করেই বিপাকে পড়তে হয়েছে শেবাগকে। সাবেক এই তারকা ব্যাটসম্যানকে দেশটির ক্ষমতাসীন দল ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ‘দালাল’ হিসেবে আখ্যা দিতে শুরু করেছেন দেশটির সাধারণ জনগণ।

টুইটারে নিজের ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট থেকে শেবাগ লেখেন, ‘নিষ্পাপ শিশুদের প্রাণ হারানোর ঘটনায় গভীরভাবে ব্যথিত। তবে এনকেফেলাইটিসে ৫০ হাজারেরও বেশি শিশু প্রাণ হারিয়েছে।’ দ্বিতীয় টুইটে শেবাগ লেখেন, ‘১৯৭৮ সালে প্রথম খবরে আসে সেই ঘটনা। ওই বছরই আমি জন্মগ্রহণ করি। এখনও আমরা একটি পরিচিত রোগের প্রকোপ থেকে নিষ্পাপ শিশুদের প্রাণ রক্ষা করার কোনো উপায় বের করতে পারিনি। এটা হৃদয় বিদারক।’

ভারতীয়দের দাবি, উত্তর প্রদেশে শিশু মৃত্যুর এমন মর্মান্তিক ঘটনার সকল দায়ভার সরকারকে নিতে হবে। কিন্তু অতীতের ঘটনা টেনে শিশু মৃত্যুর ঘটনাটি প্রশমিত করার চেষ্টা করায় শেবাগের উপর ক্ষেপে যান ভক্ত এবং দেশটির সাধারণ মানুষ। এরপর থেকেই শেবাগকে তারা বিজেপি এবং মোদির ‘দালাল’ বলে আসছেন।

উত্তর প্রদেশ সরকারের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যে জানানো হয়েছে, শিশু মৃত্যুর ঘটনায় দোষীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে তারা। এর মধ্যে ঢুকে বিতর্কের জন্ম দিয়ে সমালোচিত হচ্ছেন শেবাগ। কেউ কেউ দাবি করছেন, শাসক দলকে সমালোচনা করার মতো সাহস শেবাগের নেই।

প্রিয় স্পোর্টস/ শান্ত মাহমুদ