বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। ফাইল ছবি

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের মামলায় পরোয়ানার বিষয়ে আদেশ ২৩ সেপ্টেম্বর

ব্যারিস্টার একেএম এহসানুর রহমান জানান, এর আগে গত ২৩ জুলাই এ মামলায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আবেদন করেন মামলার বাদী এ বি সিদ্দিকী।

আমিনুল ইসলাম মল্লিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:১৭
আপডেট: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:১৮


বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। ফাইল ছবি

(প্রিয়.কম) ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত ও জাতিগত বিভেদ সৃষ্টির অভিযোগ এনে দায়ের করা মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হবে কি না, সে বিষয়ে আদেশের জন্য ২৩ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করা হয়েছে।

১৬ সেপ্টেম্বর, রবিবার ঢাকা মহানগর হাকিম আসাদুজ্জামান নূর এ আদেশ দেন।

বিষয়টি প্রিয়.কমকে জানান খালেদা জিয়ার আইনজীবী প্যানেলের অন্যতম সদস্য ব্যারিস্টার একেএম এহসানুর রহমান।

তিনি জানান, এর আগে গত ২৩ জুলাই এ মামলায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আবেদন করেন মামলার বাদী এ বি সিদ্দিকী। যিনি বাংলাদেশ জননেত্রী পরিষদ নামের একটি সংগঠনের সভাপতি। ওইদিন আদালত শুনানি শেষে আদেশের জন্য ১৬ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেছিলেন।

গত ৩০ জুন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে প্রতিবেদন দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাহবাগ থানার ওসি (তদন্ত) জাফর আলী বিশ্বাস

প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, খালেদা জিয়া ২০১৪ সালের ১০ অক্টোবর বিকেল ৫টার দিকে প্রকাশ্যে বাংলাদেশের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার জনগণ ও বিভিন্ন ধর্মাবলম্বী জনগোষ্ঠীর মধ্যে শত্রুতা বা ঘৃণার ভাব সৃষ্টির উদ্যোগ গ্রহণ করেন। একই সঙ্গে তিনি নাগরিকদের ধর্মীয় অনুভূতিতে কঠোর আঘাত আনার অভিপ্রায়ে ইচ্ছাকৃত ও বিদ্বেষপ্রসূত হয়ে ধর্ম ও ধর্মীয় বিশ্বাসকে অবমাননা করেছেন। ২০১৪ সালের ২১ অক্টোবর এ বি সিদ্দিকী এ মামলাটি দায়ের করেন।

সেই বছরের ১৪ অক্টোবর বিকেলে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে (আইইবি) শুভ বিজয়া অনুষ্ঠানে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে বলেছিলেন, ‘বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ধর্ম নিরপেক্ষতার মুখোশ পরে আছে। আসলে দলটি ধর্মহীনতায় বিশ্বাসী। আওয়ামী লীগের কাছে কোনো ধর্মের মানুষ নিরাপদ নয়। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে হিন্দুদের সম্পত্তি দখল করেছে। হিন্দুদের ওপর হামলা করেছে।’

মামলার এজাহারে বলা হয়, খালেদা জিয়ার এসব বক্তব্য যেমন ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করেছে, তেমনি হিন্দু ও মুসলমানদের মধ্যে শ্রেণিগত বিভেদও সৃষ্টি করেছে। যা দণ্ডবিধির ১৫৩(ক) ও ২৯৫(ক) ধারার অপরাধ।

প্রিয় সংবাদ/শান্ত  

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
স্পন্সরড কনটেন্ট
প্রচলিত আইনে খালেদা জিয়া নির্বাচন করতে পারেন না: আব্দুর রহমান
মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক ১১ ডিসেম্বর ২০১৮
খালেদা জিয়ার প্রার্থিতা নিয়ে বিভক্ত আদেশ হাইকোর্টের
আমিনুল ইসলাম মল্লিক ১১ ডিসেম্বর ২০১৮
সরকারের হুকুমে খালেদা জিয়ার মনোনয়ন বাতিল: রিজভী
মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক ০৯ ডিসেম্বর ২০১৮
কী কী থাকছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ইশতেহারে
মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক ০৮ ডিসেম্বর ২০১৮
খালেদার রায়ে যা বললেন কমিশনাররা
প্রদীপ দাস ০৮ ডিসেম্বর ২০১৮
মনোনয়ন নিয়ে খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে বিক্ষুব্ধদের হামলা
মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক ০৮ ডিসেম্বর ২০১৮
খালেদা জিয়া নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না
খালেদা জিয়া নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না
মানবজমিন - ১ দিন, ৩ ঘণ্টা আগে