(প্রিয়.কম) তামিম ইকবাল-সৌম্য সরকার দু’জনই ওপেনার। কিন্তু অভিজ্ঞতায় যে বিস্তর ফারাক, সেটা পরিসংখ্যানও চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেয়। তাই তো দেশের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক তামিমের কাছে শিখছেন সৌম্য সরকার। মোদ্দা কথা, প্রিয় সতীর্থকে বানিয়ে ফেলেছেন শিক্ষক।

অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের জন্য চলতে থাকা ফিটনেস ক্যাম্পের সোমবারের অনুশীলন শেষে এমনটা বলেন সৌম্য। তার মতে, ‘তার (তামিম) কাছ থেকে অনেক কিছু শেখার আছে। সে যখন স্ট্রাইকে থাকে তখন তাকে দেখি আর চিন্তা করি আমি এই বলটাকে কিভাবে খেলতাম। তামিম ভাই আগে যেভাবে খেলতেন এখন অনেকটাই ডিফারেন্ট। এখন অনেক ম্যাচিউর হয়েছেন। টিমের পরিস্থিতি উনি খুব দ্রুত ধরতে পারেন। আমি উনার কাছে মাঠের বাইরে কিংবা ভেতরে শেখার চেষ্টা করি। তার আগের হাইলাইটসগুলো এখনও আমি দেখি।’

বাংলাদেশ জাতীয় দলের হয়ে ৩১ ওয়ানডেতে ৯৫৯ রান করা সৌম্য বোলিংও করেন। চতুর্থ পেসার হিসেবে মাঝেমধ্যে দেখা যায় তাকে। কিন্তু টেস্টে একটি উইকেট নেওয়া ছাড়া তেমন কিছুই করতে পারেননি কোচ চান্দিকা হাতুরুসিংহের এই ‘প্রিয় ছাত্র’।

অবশ্য সৌম্যর ব্যাখ্যা, শেষ মুহূর্তে বোলিংয়ে তেমন কিছুই করার থাকে না। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি রেগুলার নেটে বোলিং করি। সবসময় আমাদের দেশে স্পিন আক্রমণই বেশি ছিলো। এখন চার নম্বর পেস বোলার হিসেবে এসে শেষ মুহূর্তে কিছু করা কঠিন হয়ে যায়। আমি অনুশীলনে সব সময় বোলিং করে যাচ্ছি। বোলিং দিয়ে এখনো আমি নিজেকে প্রমাণ করতে পারিনি। যেদিন আমি সুযোগ পাবো চেষ্টা করবো বোলিং দিয়ে নিজেকে প্রমাণ করার। এটাই এখন আমার চ্যালেঞ্জ।’

প্রিয় স্পোর্টস/শান্ত মাহমুদ