প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে মদের আসরে স্বামীকে খুন!

বিশ্বকর্মা পূজা উপলক্ষে ১৬ সেপ্টেম্বর শনিবার রাতে বাড়ি সাথের গ্যারাজে বন্ধুদের নিয়ে মদের আসর বসানো হয়েছিল। সেখানেই এই ঘটনা ঘটে।

আশরাফ ইসলাম
সহ-সম্পাদক
১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭, সময় - ১০:৫৭

অভিযুক্ত স্ত্রী শর্মিষ্ঠাক। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ভারতের কলকাতার হাওরাতে এবার পরকীয়ার টানে প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে স্বামীকে খুন করেছে এক গৃহবধূ। বিশ্বকর্মা পূজা উপলক্ষে ১৬ সেপ্টেম্বর শনিবার রাতে বাড়ির পাশের গ্যারাজে বন্ধুদের নিয়ে মদের আসর বসানো হয়েছিল। সেখানেই এই ঘটনা ঘটে। ওই প্রেমিক এবং প্রেমিকা তাদেরকে নির্দোষ প্রমাণ করতে নানা গল্প বানালেও লাভ হয়নি। পুলিশ প্রেমিক রাজীব (২৮) এবং প্রেমিকা শর্মিষ্ঠাকে (৩৫) গ্রেফতার করেছে।

শনিবার শর্মিষ্ঠার স্বামী রতনকে খুন করার অভিযোগে তাদের আটক করা হয়েছে। পুলিশ আরও জানায়, রতনের মাথায় শক্ত কিছু দিয়ে আঘাত করে হত্যা করা হয়েছে। রতনের মা মালতী নাথের অভিযোগে পুলিশ শর্মিষ্ঠা ও তার প্রেমিক রাজীবকে আটক করেছে।

জানা গেছে, রতন নাথের গ্যারেজের ব্যবসা ছাড়াও কুকুরের ব্যবসা ছিল। আর সেখানেই কুকুরের দেখাশোনা ও প্রশিক্ষণের কাজ করত রাজীব। কুকুরকে দেখাশোনার জন্য প্রায় রাতেই থেকে যেত রাজীব। এরপর রাজীবের সঙ্গে রতনের স্ত্রী শর্মিষ্ঠার ধীরে ধীরে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিষয়টি রতন জানতে পারার পর থেকেই শুরু হয় অশান্তি। 

এ ঘটনা থানা পর্যন্ত গড়ায় কিন্তু পুলিশ তা ঘরোয়া ভাবে মিটমাট করে নিতে জানায়। কিন্তু শনিবার রাত ১০টার দিকে মদের আসর থেকে সবাই চলে গেলে গ্যারাজেই অবৈধ সম্পর্ক নিয়ে রাজীবের সঙ্গে রতনের বাকবিতণ্ডা শুরু হয় এবং এক পর্যয়ে প্রেমিক রাজীব বেলচা জাতীয় শক্ত কিছুু দিয়ে রতনের মাথায় মারে বলে পুলিশের সন্দেহ।

হাসপাতালে নেওয়ার পথে রতনের মৃত্যু হয়। জানা গেছে, রতন ও শর্মিষ্ঠার নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া একটি মেয়ে আছে। 

সূত্র: আনন্দবাজার

 

 

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
জনপ্রিয়