(প্রিয়.কম) সাধারণত ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ এবং সেই ভালোবাসাকে বিয়েতে রূপ দেবার প্রতিশ্রুতির প্রতীক হলো এনগেজমেন্ট রিং। বেশিরভাগ সময়ে নারীর বাঁ-হাতের অনামিকায় ঠাঁই পায় নজরকাড়া একটি এনগেজমেন্ট রিং। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে দেখা যাচ্ছে, নারীরা কনিষ্ঠায় পরছেন একটি এনগেজমেন্ট রিং। না, ভুল করে তারা এই আঙ্গুলে রিং পরছেন না। বরং এর পেছনে আছে বেশ বড় একটি কারণ। 

নারীদেরকে সব সময়েই বলা হয়, তাদের জীবনে বিয়ের গুরুত্ব অনেক অনেক বেশি। বিয়ে হলো মানেই তার জীবন সার্থক। হ্যাঁ, বিয়ে গুরুত্বপূর্ণ বটে। কিন্তু এর চাইতেও বেশি গুরুত্বপূর্ণ হলো নিজেকে ভালোবাসা, নিজের প্রতি মনোযোগ দেওয়া। আর তাই অন্য কারো দেওয়া ভালোবাসার প্রতীক নয়, নিজেদের কনিষ্ঠ আঙ্গুলে নিজের কেনা রিং পরছেন নারীরা, নিজেকে ভালোবাসার প্রতীক হিসেবে। 

অনেক নারীই কনিষ্ঠায় রিং পরার মাধ্যমে এই ব্যাপারটাকে তুলে ধরছেন। এটা দেখতে অনেকটা এনগেজমেন্ট রিং এর মতোই। কিন্তু তা পরার অর্থ হলো আপনি নিজের সত্ত্বাকে ভালোবাসেন।  

অন্য সবকিছুর চাইতে নিজেকে বেশি গুরুত্ব দেবেন, সেটাই আপনাকে বার বার মনে করিয়ে দেবে এই রিং। তারমানে এই নয় যে অন্য কাউকে আপনি ভালোবাসতে পারবেন না। 

কনিষ্ঠায় পরার এই রিংগুলো সাধারণত হয় হার্ট-শেপড। এগুলো একটু নজরকাড়া ধরণেরই হয়ে থাকে। অনেকে দুই হাতের দুই কনিষ্ঠাতেই একটা করে রিং পরেন। 

ইনস্টাগ্রামে বেশকিছু সেলেব্রিটির কল্যাণে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে “পিঙ্কি রিং”। এমা ওয়াটসন, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, কাইলি জেনার, কেটি পেরির মতো জনপ্রিয় তারকাদের হাতে শোভা পাচ্ছে এই রিং। 

সূত্র: দি ডেইলি লামা