তাজরিন ট্র্যাজেডির ৭ বছর পূর্তিতে নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা

মানবজমিন প্রকাশিত: ২৫ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০

সাভারের আশুলিয়ায় ২০১২ সালের ২৪শে নভেম্বর নিশ্চিন্তপুর এলাকার তুবা গ্রুপের তাজরিন ফ্যাশনে ভয়াবহন অগ্নিকাণ্ডের ৭ বছর পূর্তিতে নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন নিহতদের স্বজন ও আহত শ্রমিকরা। গতকাল সকাল থেকে বিভিন্ন সংগঠনের ব্যানারে দোষীদের শাস্তির দাবিতে খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে পুড়ে যাওয়া কারখানাটির সামনে ভিড় করেন তারা। পরে তারা কারখানার মূল ফটকে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে বিভিন্ন সংগঠনের ব্যানারে আলাদা আলাদা মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এসময় তাজরীনের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাকে পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড উল্লেখ করে ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিক ও নেতৃবৃন্দরা খুনি মালিক দেলোয়ার হোসেন ও তার সহযোগীদের ফাঁসির দাবি জানান। আয়োজিত মানববন্ধ-সমাবেশে অংশ নিয়ে নিহত শ্রমিকদের স্বজন ও আহত শ্রমিকরা জানান, তাজরিন ফ্যাশনে অগ্নিকাণ্ডের ৭ বছর পূর্ণ হলেও এখনও ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসন, চিকিৎসা ও উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ নিশ্চিত করতে পারেনি সরকার এবং বিজিএমইএ। এমতাবস্থায় অনাহারে অর্ধাহারে বিনা চিকিৎসায় পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন তারা। বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের নেতারা বলেন, ২৪শে নভেম্বর তাজরীন ফ্যাশনস কর্তৃপক্ষ প্রধান ফটক আটকে দিয়ে ১১৩ জন শ্রমিককে কারখানার ভেতরে পুড়িয়ে মেরেছিল। এটা একটা পরিকল্পিত হত্যাকান্ড ছিলো যা বিভিন্ন তদন্তে প্রমাণ হয়েছে। কিন্তু সরকার এতদিনেও খুনি দেলোয়ারের শাস্তি নিশ্চিত করতে না পারায় সারা দেশের শ্রমিকদের ভেতরে আগুন জ্বলছে। তাই অবিলম্বে খুনি দেলোয়ারের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি, শ্রমিকদের নিরাপদ কর্মপরিবেশ, ক্ষতিগ্রস্তদের উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ ও পুনর্বাসন নিশ্চিতের দাবি জানান তারা। পরে নিহত শ্রমিকদের আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। এসময় নিহতের স্বজনদের অনেকেই প্রিয়জনের কথা স্মরণ করে কান্নায় ভেঙে পড়েন। এদিকে বেলা এগারটার দিকে আশুলিয়া শিল্প পুলিশ-১ এর পুলিশ সুপার (পরিচালক) সানা শামীনুর রহমানের নেতৃত্বে শিল্প পুলিশের একটি দল তাজরীনের অগ্নিকাণ্ডে নিহত শ্রমিকদের স্মরণে কারখানার সামনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে আয়োজিত মানববন্ধন-সমাবেশে বাংলাদেশ বস্ত্র পোশাক শ্রমিকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সরোয়ার হোসেন, জাতীয় শ্রমিকলীগ আশুলিয়া আঞ্চলিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. ইমাম হোসেন, তৃণমূল গার্মেন্ট শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক শেখ আলমগীর হোসেন লালনসহ জাগো বাংলাদেশ গার্মেন্ট শ্রমিক ফেডারেশন, বাংলাদেশ পোশাক শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন ফেডারেশন, গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র, দুর্ঘটনায় আহত শ্রমিকদের চিকিৎসা সহায়তা ট্রাস্ট ও টেক্সটাইল গার্মেন্টস ওয়ার্কার ফেডারেশনসহ অন্যান্য শ্রমিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, ২০১২ সালের ২৪ নভেম্বর তোবা গ্রুপের তাজরিন ফ্যাশনে ভয়াবহ আগুনের ঘটনায় অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা যায় ১১৩ জন শ্রমিক এবং আহত হয় প্রায় পাঁচ শতাধিক শ্রমিক।
সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন
আরও