করোনাভাইরাস কী মস্তিষ্কে আক্রমণ করে?

ঢাকা টাইমস প্রকাশিত: ০৯ এপ্রিল ২০২০, ১৩:০৬

বিশ্বজুড়ে মহামারি রূপ নিয়েছে করোনাভাইরাস। বহু গবেষণাগারে এই ভাইরাসের নানা দিক নিয়ে গবেষণা করছেন বিজ্ঞানীরা। এ সম্পর্কে অনেক তথ্য সামনে এসেছে। তারপরও করোনাভাইরাস সম্পর্কে ও এর থেকে তৈরি হওয়া অসুখ নিয়ে এখনও নানা বিভ্রান্তি রয়েছে। এই ভাইরাস মানুষের শরীরে প্রবেশ করে কী কী কার্যকলাপ ঘটায়, কোন কোন অংশে থাবা বসায় তা নিয়েও যথেষ্ট ধোঁয়াশা রয়েছে। এই ভাইরাসের মস্তিষ্কে প্রভাব ফেলা নিয়ে বিশেষজ্ঞরা এখনও নিশ্চিত নন। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কোনও ব্যক্তির প্রতিরোধ ক্ষমতা কতটা শক্তিশালী বা দুর্বল, তার উপর নির্ভর করে এই অসুখ কার শরীরে কতটা থাবা বসাবে। শুরুতে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছিলেন, করোনভাইরাসে আক্রান্তের প্রাথমিক ধাপে বলে আসছিলেন হাঁচি-কাশি, গলা ব্যথা, জ্বর থাকার কথা। এরপর সম্প্রতি জানিয়েছেন, করোনা আক্রান্ত হলে জিহ্বার স্বাদ নষ্ট হয়ে যায় এবং গন্ধ নেয়ার অনুভূতি থাকবে না। চিকিৎসক এবং গবেষকরা এবার নতুন এক গবেষণায় জানিয়েছেন, করোনা আক্রান্ত অনেকেরই হার্ট অ্যাটাকের ঘটনা ঘটছে। একপর্যায়ে হার্ট অ্যাটাকে রোগীর মৃত্যুও হচ্ছে। একই সঙ্গে করোনা রোগীর মধ্যে মস্তিষ্কে সমস্যা দেখা দিচ্ছে। মস্তিষ্ক ফুলে যাচ্ছে, খিঁচুনি হচ্ছে এবং একপর্যায়ে স্ট্রোক করে মৃত্যু হচ্ছে অনেকের। যারা গন্ধ নেয়ার অনুভূতি হারিয়ে ফেলছেন, তাদের মস্তিষ্ক ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার কারণে এ ধরনের ঘটনা ঘটছে। গবেষকরা জানিয়েছেন, প্রাথমিক ধাপে পাতলা পায়খানা থেকে শুরু করে ডায়রিয়া হতে পারে। এমনকি অনেকের বমি হওয়ার মধ্য দিয়ে লক্ষণ প্রকাশ হতে শুরু করে। তরুণদের মধ্যেও আক্রান্ত হলে শ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখা যাচ্ছে। গত সপ্তাহে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিমান সংস্থায় কর্মরত এক নারী করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসলে তার মস্তিষ্কে সমস্যা দেখা দেয়। চিকিৎসকরা তার মধ্যে বিরল মস্তিষ্কের রোগ দেখতে পান। পরে চিকিৎসক গবেষণা করে করোনাভাইরাসের সঙ্গে মস্তিষ্ক ঘঠিত সমস্যা দেখতে পান। সম্প্রতি নিউইয়র্ক টামইসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জ্বর, কাশি এবং শ্বাস প্রশ্বাসে অসুবিধা করোনভাইরাস সংক্রমণের সাধারণ উপসর্গ হলেও কিছু রোগীর ক্ষেত্রে মানসিক ভারসাম্য হারানো বা এনসেফেলোপ্যাথি, মস্তিষ্কের বৈকল্যতা দেখা দিতে পারে। এই নিউরোলজিকাল উপসর্গের কারণে রোগীর স্বাভাবিক ঘ্রাণ ও স্বাদ নেওয়া ক্ষমতা হ্রাস পাবে এমনকি হার্ট অ্যাটাকও হতে পারে। ইতালির ইউনিভার্সিটি অব ব্রেসিয়া হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. আলেসান্দ্রো পদোভানি জানিয়েছেন, করোনা আক্রান্ত কিছু রোগী জ্বরের কারণে উন্মাদ হয়ে যান। এমনকি জ্বরের আগেও এই লক্ষণ দেখা দিতে পারে। এমন রোগীদের চিকিৎসার জন্য ব্রেসিয়া হাসপাতালে নিউরোকোভিড ইউনিট চালু করা হয়েছে। নিউরোক্রিটিক্যাল কেয়ার সোসাইটির নেতৃত্ব দেওয়া পিটসবার্গ স্কুল অব মেডিসিন বিশ্ববিদ্যালয়ের নিউরোলজিস্ট ডা. শেরি এইচ-ওয়াই চিউ জানান, স্নায়বিক লক্ষণ সম্পর্কে এখনও অনেক কিছু জানা যায়নি, তবে এই বিষয়ে অধ্যয়নের প্রচেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন।
সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন
আরও

করোনাকালের ঈদ

১ ঘণ্টা, ৪৯ মিনিট আগে

সাল্লি বঁটি

৩ ঘণ্টা, ৪৭ মিনিট আগে

আনারস কেন খাবেন?

৪ ঘণ্টা, ৫৯ মিনিট আগে

কয়েদি নম্বর ৩০০

৬ ঘণ্টা, ১ মিনিট আগে