গড়পড়তা ঈদের গানের বাজার

মানবজমিন প্রকাশিত: ১৬ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০

শেষ হলো কোরবানির ঈদ। আর ঈদ আনন্দের একটি অন্যতম অংশ হলো গান। এবারও ঈদ উপলক্ষে প্রকাশ হয়েছে প্রায় দেড় শতাধিক নতুন গান। কিছু গান প্রকাশ হয়েছে মিউজিক ভিডিও আকারে। আবার কিছু প্রকাশ হয়েছে অডিও আকারে। তবে বরাবরের মতো এবার ঈদেও কোনো পূর্ণ অ্যালবাম প্রকাশ হয়নি। কারণ ডিজিটালি গান প্রকাশের এই সময়ে সবাই সিঙ্গেল গান প্রকাশ করছে। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানগুলোও আর ৮-১০ গান নিয়ে অ্যালবাম করতে রাজি নয়। তাই সিঙ্গেল প্রকাশের এই ট্রেন্ডকে মেনে নিয়ে শিল্পী ও সংগীত সংশ্লিষ্টরাও গান তৈরি করছেন এখন। গেল ঈদের গানের বাজারটি ছিল গড়পড়তা। একেবারে মুখ থুবড়েও পড়েনি, আবার আহামরি কোনো গান চলেছে তাও বলা যাবে না। তবে খারাপ এ সময়ে কোরবানির ঈদের অডিও বাজারে প্রকাশিত দেড় শতাধিক গান কিছুটা হলেও আশার আলোর সঞ্চার করেছে। তাছাড়া ঈদের গানের অবস্থার সঠিক হিসাব-নিকাশ করতে হলেও আরো সময়ও দিতে হবে বলে মনে করছেন সংগীতবোদ্ধারা। এ ঈদে সাউন্ডটেক, সংগীতা, লেজারভিশন, জি-সিরিজ, সিডি চয়েস, ঈগল মিউজিক, সিএমভি, সুরঞ্জলি, মাই সাউন্ড, ধ্রুব মিউজিক স্টেশনসহ বেশকিছু প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান নতুন গান প্রকাশ করেছে। তবে এরমধ্যে সিনিয়র শিল্পীদের গান ছিল একেবারেই কম। ঈদে সর্বাধিক গান ও ভিডিও নিয়ে উপস্থিত ছিলেন জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী আসিফ আকবর। এরমধ্যে সিডি চয়েস থেকে আসিফ ও পূজার ‘আমি তুমিময়’, ধ্রুব মিউজিক স্টেশন থেকে আসিফের একক কন্ঠে ‘দেবদাস’, এসএস মিউজিক ক্লাব থেকে ‘কি ছিল ভুল’, অর্ক মিউজিক স্টেশন থেকে ‘আমার বিশ্বাস’, নাজ মাল্টিমিডিয়া থেকে ‘চোখের কিনারে’ গানগুলোর ভিডিও প্রকাশ হয়েছে। এরমধ্যে ‘আমি তুমিময়’ ও ‘দেবদাস’ গানটি পছন্দ করেছেন শ্রোতা-দর্শক। এর বাইরে আর্ব এন্টারটেইনমেন্ট থেকে বেশকিছু অডিও গানও প্রকাশ হয়েছে আসিফের। হাবিব তার ফিচারিংয়ে তারই ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ করেছেন টি কে তারেকের গান ‘অভিমানী প্রেম’। সাউন্ডটেক প্রকাশ হয়েছে ন্যান্‌সির গান ‘জানি না কোন কারণে’। হৃদয় খান ঈদে তার চ্যানেলে প্রকাশ করেছেন ‘জুয়াড়ি’ শিরোনামের একটি গান। সংগীতা থেকে প্রকাশিত সংগীত তারকা ইমরানের ‘ক্ষয়’ গানটি ছিল ঈদে প্রশংসিত। এ গানে মডেল-অভিনেত্রী টয়ার সঙ্গে পারফর্ম করেছেন ইমরান। এর বাইরে সাউন্ডটেক থেকে জিপি মিউজিকে প্রকাশ হয়েছে ইমরান ও বৃষ্টির দ্বৈত গান ‘বায়না’ ও ইমরানের একক কন্ঠে সিডি চয়েসের ব্যানারে ‘কি জ্বালা দিলা তুমি’। এদিকে ঈগল মিউজিক থেকে প্রকাশিত তরুণ কন্ঠশিল্পী সামস ভাই এর ‘ঘুম ভালোবাসি’ শীর্ষক গানটি ঈদের আগে থেকেই বেশি বাজতে শোনা গেছে। এরইমধ্যে গানটির ইউটিউব ভিউ ছাড়িয়েছে ৩৭ লাখ। অন্যদিকে ঈদের উল্লেখযোগ্য গানের মধ্যে সিডি চয়েস থেকে প্রকাশ হয়েছে ফজলুর রহমান বাবুর ‘পাঠাইলা কেন সংসারে’, কাজী শুভর ‘কত ভালোবাসি তোরে’, পূজার ‘তোমার দেখা যদি পাই’, তানজীব সারোয়ার ও দিল আফরোজের ‘কত ভালোবাসি তোরে’, কামরুজ্জামান রাব্বির ‘কলিজাতে লাগে’সহ বেশকিছু গান। জি-সিরিজ প্রকাশ করেছে ইমন খানের ‘কেউ না’, ঐশীর ‘সত্যি করে বল’, এফ এ সুমনের ‘দূর আকাশের তারারে’সহ বেশকিছু গান। সংগীতা প্রকাশ করেছে এফ এ সুমনের ‘বইলা যা মাইয়া’, ইলিয়াস-অরিনের ‘তোমার কি হিংসে হয়’সহ কয়েকটি গান। এর বাইরে সিএমভি প্রকাশ করেছে কাঙ্গালিনি সুফিয়া, কনা ও মার্সেলের ‘প্রেমিক বাঙ্গাল’, শফিকুলের ‘ভাবতে ঘেন্না লাগে’, শেখ সাদির ‘নেই হয়ে আছো’ এবং লেজারভিশন প্রকাশ করেছে আরফিন রুমি-সাবরিনার ‘বাঁচি কি করে’সহ কয়েকটি গান। এর বাইরে পুরাতন ও নতুন আরো কিছু কোম্পানি থেকেও বিভিন্ন শিল্পীর গান প্রকাশ হয়েছে ঈদে। গেল ঈদের বাজার নিয়ে ঐতিহ্যবাহী প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সাউন্ডটেকের কর্ণধার সুলতান মাহমুদ বাবুল বলেন, গানের অবস্থা যে আগের মতো নেই সেটা সবারই জানা। তারপরও আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি নতুন গান প্রকাশের। ঈদসহ বিভিন্ন উৎসবে আমাদের চেষ্টা থাকে শ্রোতাদের কথা মাথায় রেখে জনপ্রিয় শিল্পীদের গান প্রকাশের। এবারও আমরা তাই করেছি। আমি মনে করি এবার ঈদের গানের বাজার ছিল মোটামুটি মানের। তবে এখনই এ বিষয়ে সঠিক ব্যাখ্যা দেয়া যাবে না। আরো সময় পার হলেই বুঝতে পারবো আমরা। কারণ এখনতো ডিজিটালি গান প্রকাশ হয়। তাই পুরো বিষয়য়টা এখন দীর্ঘমেয়াদি হয়ে গেছে। এমআইবি সভাপতি ও লেজারভিশনের চেয়ারম্যান এ কে এম আরিফুর রহমান বলেন, এবার ঈদে বিভিন্ন কোম্পানি চেষ্টা করেছে নতুন গান প্রকাশের। আমরাও চেষ্টা করেছি। তবে গানের বিনিয়োগ উঠে আসতে অনেক সময় লাগে এখন। তাই এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না। তবে গড়পড়তাই ছিল এবারের ঈদের গানের বাজার।
সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন
আরও

Azmeri Haque Badhon

২ ঘণ্টা, ৭ মিনিট আগে