কালো তালিকাভুক্ত হওয়ায় হুয়াওয়েতে অ্যান্ড্রয়েড আপডেট সীমিত করছে গুগল

মানবজমিন প্রকাশিত: ২১ মে ২০১৯, ০০:০০

চীনা স্মার্টফোন প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়েতে অ্যান্ড্রয়েড আপডেট সীমিত করার ঘোষণা দিয়েছে মার্কিন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান গুগল। ফলে এখন থেকে হুয়াওয়েতে গুগল পরিচালিত অপারেটিং সিস্টেমটির নতুন বেশকিছু আপডেট আসবে না। সমপ্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রামেপর প্রশাসন প্রতিষ্ঠানটিকে কালো তালিকাভুক্ত করেছে। এরপরই এমন পদক্ষেপ নিলো গুগল। এ খবর দিয়েছে বিবিসি।খবরে বলা হয়, গুগলের এই পদক্ষেপের কারণে হুয়াওয়ের স্মার্টফোনগুলো গুগলের অপারেটিং সিস্টেমটির নতুন বেশ কয়েকটি আপডেট পাবে না। এ ছাড়া হুয়াওয়ে গুগলের একাধিক অ্যাপও ব্যবহার করতে পারবে না। এক বিবৃতিতে গুগল তাদের এই পদক্ষেপ সমপর্কে জানিয়েছে, তারা ট্রামপ প্রশাসনের জারি করা নির্দেশ মেনেই এই পদক্ষেপ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি বলছে, তারা রাষ্ট্রের নির্দেশনা মেনে চলছে এবং এর ফলাফল যাচাই করছে।উল্লেখ্য, হুয়াওয়েকে কালো তালিকাভুক্ত করে মার্কিন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত লাইসেন্স ছাড়া কোনো মার্কিন প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ের সঙ্গে বাণিজ্য করতে পারবে না। এ বিষয়ে হুয়াওয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে, তারা মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানায়।এদিকে, গুগল জানিয়েছে, বর্তমানে বাজারে যেসব ফোন আছে ও সেগুলোতে যে অ্যান্ড্রয়েড সিস্টেম চালু আছে সেগুলো তেমনই থাকবে। এমনকি হুয়াওয়ের বর্তমান ব্যবহারকারীরা বেশিরভাগ অ্যাপেরই আপডেট পাবেন ও গুগল প্লে সেবাও ভোগ করতে পারবেন। তবে গুগল যখন অ্যান্ড্রয়েডের নতুন ভার্সন বাজারে ছাড়বে, সেটি পাওয়া যাবে না হুয়াওয়ের ফোনগুলোয়। তবে একটি ওপেন সোর্স লাইসেন্সের মাধ্যমে বিদ্যমান অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমগুলো ব্যবহার করতে পারবে হুয়াওয়ে। এ ছাড়া, ভবিষ্যতের হুয়াওয়ে ফোনগুলোয় ইউটিউব ও গুগল ম্যাপস’র মতো বিভিন্ন অ্যাপও না থাকতে পারে।পশ্চিমা দেশগুলোতে সমপ্রতি হুয়াওয়ের প্রযুক্তি নিয়ে নানা প্রশ্ন উঠছে। তাদের দাবি হুয়াওয়ের প্রযুক্তি নিরাপত্তা ঝুঁকি সৃষ্টি করবে এবং চীনের সরকার এর মাধ্যমে তথ্য হাতিয়ে নিতে সক্ষম হবে। তবে প্রথম থেকেই এ ধরনের সকল অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে হুয়াওয়ে। গত বুধবার যুক্তরাষ্ট্র সরকার হুয়াওয়েকে এনটিটি লিস্টে অন্তর্ভুক্ত করে। ফলে এখন থেকে হুয়াওয়ে মার্কিন কোনো প্রতিষ্ঠান থেকে প্রযুক্তি সহায়তা নিতে পারবে না। ঘটনার প্রেক্ষিতে প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী রেন ঝেংফেই বলেন, আমরা এরকম একটি ঘোষণার জন্য প্রস্তুত ছিলাম।
সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ুন
আরও