ছবি সংগৃহীত

ছয় বছরের মধ্যে বিক্রিতে সর্বনিম্ন প্রবৃদ্ধি নেসলের

বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ খাদ্যনির্মাতা প্রতিষ্ঠান গত ছয় বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন বিক্রি প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে গত বছর।

sanaulalam
লেখক
প্রকাশিত: ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৫, ০৬:৪৫ আপডেট: ১৭ জুন ২০১৮, ২০:৩০
প্রকাশিত: ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৫, ০৬:৪৫ আপডেট: ১৭ জুন ২০১৮, ২০:৩০


ছবি সংগৃহীত
(প্রিয়.কম) বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ খাদ্যনির্মাতা প্রতিষ্ঠান গত ছয় বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন বিক্রি প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে গত বছর। অধিগ্রহণ ও মুদ্রার উত্থান-পতনের প্রভাব বাদ দিয়ে প্রতিষ্ঠানটির অর্গানিক সেলস থেকে রাজস্বের পরিমাণ ২০১৪ সালে বেড়েছে ৪ দশমিক ৫ শতাংশ। এ নিয়ে টানা দ্বিতীয় বছর সুইস প্রতিষ্ঠানটি তাদের ৫-৬ শতাংশের বিক্রয় প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে ব্যর্থ হলো। একটি প্রতিষ্ঠানের চলমান কার্যক্রমের প্রত্যক্ষ ফলাফল হিসেবে অর্জিত রাজস্বকে অর্গানিক সেলস বলা হয়। এ রাজস্বকে অত্যন্ত গুরুত্বসহকারে দেখা হয়, কারণ প্রতিষ্ঠানের শক্তিমত্তার অন্যতম সূচক এ রাজস্ব। বিশ্বের বৃহত্তম এ খাদ্যপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি জানাচ্ছে, চলতি বছরে তাদের অর্গানিক বিক্রয় প্রবৃদ্ধির হার ৫ শতাংশের কাছাকাছি থাকতে পারে। বিশ্বজুড়ে কঠিন পরিস্থিতির কারণে এ বছরও তাদের বিক্রয়ে উল্লেখযোগ্য প্রবৃদ্ধি অর্জন হবে না। চীন ও ইউরোপের বাজার প্রসঙ্গে নেসলের প্রধান নির্বাহী পল বালকে বলেন, ‘তাদের অবস্থা ভালো নয়। তার পরও বিশ্বের কঠিন অর্থনৈতিক পরিস্থিতির তুলনায় আমাদের পারফরম্যান্স যথেষ্ট শক্তিশালী।’ গত বছর ফরাসি প্রসাধনী কোম্পানি ল’রিয়েলের স্টকের একটি অংশ কেনে নেসলে। ল’রিয়েল পর্যাপ্ত মুনাফা করায় নেসলেরও ২০১৪ সালে নিট মুনাফা ৪৫ শতাংশ বেদ ১৪ দশমিক ৫ বিলিয়ন সুইস ফ্রাঁয় উন্নীত হয়েছে। এক্ষেত্রে বিশ্লেষকদের প্রত্যাশা ছিল ১০ দশমিক ৩ বিলিয়ন সুইস ফ্রাঁ। রাজস্বের পরিমাণ শূন্য দশমিক ৬ শতাংশ কমে ৯১ দশমিক ৬ বিলিয়ন ফ্রাঁয় নেমে এলেও তা এখনো বিশ্লেষকদের ৯১ দশমিক ৪৩ বিলিয়ন ফ্রাঁর চেয়ে বেশি। নেসলে জানায়, অপ্রতিকূল বিনিময় হারের কারণে তাদের বিক্রয়ের পরিমাণ ৫ দশমিক ৫ শতাংশীয় পয়েন্ট কমেছে।