ছবি সংগৃহীত

পহেলা বৈশাখে অপূর্ব-তারিনের ‘মন’

বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে এটিএন বাংলায় পহেলা বৈশাখ রাত ১১টায় প্রচারিত হবে বিশেষ টেলিফিল্ম মন। ইরাজ আহমেদের রচনায় টেলিফিল্মটি পরিচালনা করেছন চয়নিকা চৌধুরী। এতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন তারিন ও অপূর্ব।

priyo.com
লেখক
প্রকাশিত: ১১ এপ্রিল ২০১৪, ০৪:১১ আপডেট: ১৮ জুন ২০১৮, ১৪:৪৯
প্রকাশিত: ১১ এপ্রিল ২০১৪, ০৪:১১ আপডেট: ১৮ জুন ২০১৮, ১৪:৪৯


ছবি সংগৃহীত
(প্রিয়.কম)- বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে এটিএন বাংলায় পহেলা বৈশাখ রাত ১১টায় প্রচারিত হবে বিশেষ টেলিফিল্ম ‘মন’। ইরাজ আহমেদের রচনায় টেলিফিল্মটি পরিচালনা করেছন চয়নিকা চৌধুরী। এতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন তারিন ও অপূর্ব। টেলিফিল্মটির কাহিনি এক বিবাহিত দম্পতিকে নিয়ে। যেখানে শায়ন ও মেঘলাকে ঘিরে ছোট্ট নীড় রচিত হয়েছে। শায়নের ভূমিকায় দেখা যাবে অপূর্বকে। অন্যদিকে মেঘলা হলেন তারিন। টেলিফিল্মটির গল্প এরকম, শায়ন আর মেঘলার বিয়ে হয়েছে বেশ কয়েক বছর। শায়নের জীবনে শুধু কাজ আর কাজ। আর মেঘলা হাউজ ওয়াইফ। স্বামীকে সে খুব বেশি কাছে পায় না। সারাদিন একা একা তার সময় কাটে। শায়ন অফিস, প্রমোশনের চিন্তা আর কাজ নিয়ে আছে। মেঘলা ঘরে বসে বসে তাদের দুজনের পুরনো দিনের আনন্দময় সময়ের কথা ভাবে। ভেবে ভেবে তার মন কেঁদে ওঠে। একসময় শায়ন হঠাৎ টের পায় মেঘলার কাছে মাঝে মাঝে একটা ফোন আসে। মেঘলা তার সামনে ফোনটা রিসিভ করে না। রাতে শায়ন ঘুমিয়ে গেছে ভেবে মেঘলা ফোন নিয়ে পাশের ঘরে চলে যায়। কারও সঙ্গে কথা বলে। শায়নের মনে সন্দেহ তৈরী হয়। শায়ন কাজে মন দিতে পারে না। তার মনে হয় মেঘলা কারও প্রেমে পড়ে যায়নি তো? শায়ন মেঘলার গতিবিধির ওপর নজর রাখতে শুরু করে। কিন্তু হাতেনাতে ধরতে পারে না মেঘলাকে। মেঘলাকে ফোন নিয়ে প্রশ্ন করে শায়ন। মেঘলা বলে রং নাম্বারের কথা। শায়ন কথাটা বিশ্বাস করে না। সে চেষ্টা করে মেঘলার গতিবিধির ওপর নজর রাখতে। এসব করতে গিয়ে তার অফিসের কাজে গোলমাল হতে শুরু করে। একদিন শায়ন অফিসে যাওয়ার কথা বলে বাসার কাছে বসে থাকে মেঘলাকে ধরার জন্য। মেঘলাকে অনুসরণ করে শায়ন পৌঁছায় এক রেস্তোরাঁয়। সেখানে শায়ন এক ভিন্ন ঘটনার মুখোমুখি হয়। সে আবিষ্কার করে মেঘলা তার মনযোগ আকর্ষণ করার জন্য এতোদিন বানিয়ে বানিয়ে ফোনে কথা বলেছে। মিথ্যে অভিনয় করে গেছে শায়নের মনে ঈর্ষা তৈরির জন্য। শায়ন নতুন এক মেঘলাকে আবিষ্কার করে। মেঘলার অভিমানের কান্না আর শায়নের আবিষ্কার দুজনকে নতুন জীবনের পথে নিয়ে যায়।