ছবি সংগৃহীত

বৃহস্পতিবার ২৫ হাজার ট্যাব পাচ্ছেন সরকারি কর্মকর্তারা

দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর অবশেষে আগামী বৃহস্পতিবার ২৫ হাজার সরকারি কর্মকর্তাকে আনুষ্ঠানিক ট্যাব দেওয়া হচ্ছে। সজীব ওয়াজেদ জয় সারাদেশের সরকারি কর্মকর্তাদের হাতে ট্যাব বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন।

এম. মিজানুর রহমান সোহেল
জেষ্ঠ্য প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৫, ১১:০৪ আপডেট: ১১ জুন ২০১৮, ২০:১৭
প্রকাশিত: ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৫, ১১:০৪ আপডেট: ১১ জুন ২০১৮, ২০:১৭


ছবি সংগৃহীত
(প্রিয়.কম) দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর অবশেষে আগামী বৃহস্পতিবার ২৫ হাজার সরকারি কর্মকর্তাকে আনুষ্ঠানিক ট্যাব দেওয়া হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ন্যাশনাল আইসিটি ইন্ফ্রা-নেটওয়ার্ক ফর বাংলাদেশ গভ. নেট ফেজ -২ (ইনফো সরকার-২) প্রকল্পের আওতায় সারাদেশের সরকারি কর্মকর্তাদের হাতে ২৫ হাজার ট্যাব বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন। উক্ত অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্মেদ পলক বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, একই প্রকল্পের আওতায় দেশের প্রতিটি উপজেলা পর্যায়ের ৩০টি সরকারি অফিস এবং জেলা পর্যায়ের ৫৫টি সরকারি অফিস একটি নেটওয়ার্কের সাথে সংযুক্ত করা হয়েছে। জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের সরকারি অফিসসমূহের সাথে ভিডিও কনফারেন্সিং সিস্টেম চালু করার লক্ষ্যে ৪২১টি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়সহ ৮০০টি অফিসে ভিডিও কনফারেনিসং ব্যবস্থা স্থাপন করা হয়েছে। ৪৮৫টি উপজেলার অফিসগুলোতে রাউটারে অব্যাহতভাবে চালু রাখতে সোলার প্যানেল স্থাপন করা হয়েছে। বাংলাদেশ সচিবালয়কে ওয়াইফাইয়ের আওতায় আনাসহ দেশের উল্লেখযোগ্য ১২টি বিশ্ববিদ্যালয়ে কম্পিউটার ল্যাব স্থাপন করা হয়েছে। এ ছাড়া প্রকল্পের আওতায় যশোরে একটি ডাটা রিকভারি সেন্টার স্থাপন করা হবে। সরকারি কর্মকর্তাদের ব্যবহারের জন্য ২৫ হাজার ট্যাব প্রদান করা হবে। এ ব্যাপারে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার বলেন, তথ্যপ্রযুক্তি স্বপ্ন ও সম্ভাবনার নতুন দুয়ার খুলে দিয়েছে। এ দুয়ার লাখো তরুণদের প্রযুক্তি নির্ভর ক্যারিয়ার সৃষ্টির সুযোগ করে দিয়েছে। এ দুয়ার সারা পৃথিবীকে হাতের মুঠোয় নিয়ে এসেছে। এ দুয়ার দিয়েই বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়ার বার্তা সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে। এখন প্রযুক্তিতে নিজেকে ও বাংলাদেশকে চেনাতে প্রয়োজন যথাযথ প্রশিক্ষণ। প্রশিক্ষণ ব্যক্তিকে পরিপূর্ণ করে। প্রয়োজনীয় করে। পরিশীলিত করে। নিজেকে জানতে প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই। প্রশিক্ষণ আত্মজিজ্ঞাসার দ্বার উন্মোচন করে। সূত্র জানায়, সরবরাহ করা ট্যাবে উন্নত প্রযুক্তি সন্নিবেশ ও এটি যাতে টেকসই হয় তা নিশ্চিত করতে মন্ত্রণালয়ের একটি মনিটরিং টিম কাজ করেছে। এই উদ্যোগ আমলাতান্ত্রিক জটিলতা এড়ানোর পাশাপাশি কাজের দীর্ঘসূত্রতা কমবে বলে আশা করছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়। এই মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগেই ট্যাব বিতরণ করা হবে। মন্ত্রণালয় বলছে, ট্যাবের মাধ্যমে ডিজিটাল স্বাক্ষর ব্যবহার করে একজন কর্মকর্তা অফিসের বাইরে থেকেও দাফতরিক কাজ এগিয়ে নিতে পারবেন। যে কোনো সময় কাজকর্ম পর্যবেক্ষণ করতে পারবেন। ফাইলের সর্বশেষ অবস্থাও জানতে পারবেন।

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...