ছবি সংগৃহীত

সাক্ষ্য প্রমাণ মিললেই খালেদাকে গ্রেপ্তার

বিএনপি চেয়ারপার্সনের বিরুদ্ধে হুকুমের আসামী করে মামলা দায়ের করলেও এখনি তাকে গ্রেপ্তারের পরিকল্পনা নেই বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া। তবে.. <ul> <li><a href="http://www.priyo.com/2015/01/26/130032.html">খালেদাকে হুকুমের আসামি করে মামলা, সরকারের ভিন্ন কৌশল?</a></li> </ul>

priyo.com
লেখক
প্রকাশিত: ২৬ জানুয়ারি ২০১৫, ১১:১৫ আপডেট: ১৫ এপ্রিল ২০১৮, ১৯:০৫
প্রকাশিত: ২৬ জানুয়ারি ২০১৫, ১১:১৫ আপডেট: ১৫ এপ্রিল ২০১৮, ১৯:০৫


ছবি সংগৃহীত
(প্রিয়.কম) বিএনপি চেয়ারপার্সনের বিরুদ্ধে হুকুমের আসামী করে মামলা দায়ের করলেও এখনি তাকে গ্রেপ্তারের পরিকল্পনা নেই বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া। তবে বাস পোড়ানোর মামলায় যথেষ্ঠ তথ্য প্রমাণ পেলেই বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার করা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। ডিএমপি’র গণমাধ্যম কার্যালয়ে সোমবার দুপুরে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান। আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, পুলিশ অনুমানের ওপর কাজ করে না। কাউকে গ্রেপ্তারের আগে তথ্য সংগ্রহ, যাচাই-বাছাই এবং তদন্ত শেষেই গ্রেপ্তার করে। সুতরাং অপরাধী সেই হোক না কেন তদন্তে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে পেট্রোল বোমা ছুড়ে গাড়ি পুড়িয়ে ৩১ জনকে অগ্নিদগ্ধ করার ঘটনায় গত শনিবার পুলিশ বাদী হয়ে খালেদাকে হুকুমের আসামি করে মামলা করে। নাশকতার জন্য অবরোধ আহ্বানকারী খালেদা জিয়াকে দায়ী করে তাকে গ্রেপ্তারে আওয়ামী লীগ নেতাদের দাবির মধ্যে পুলিশের এই মামলা হয়। মামলার পর সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগ বিএনপি চেয়ারপারসনকে ৩১ জানুয়ারির মধ্যে গ্রেপ্তার করতে সরকারকে সময় বেঁধে দিয়েছে। অবরোধে বাস-ট্রাক চালক ও যাত্রীদের অগ্নিদগ্ধের জন্য তারাও খালেদাকে দায়ী করছে। ডিএমপি কমিশনার জানান, গত ৫ জানুয়ারি অবরোধ ঘোষণার পর রাজধানীতে ৬৩৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর মধ্যে ২৮ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেওয়া হয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালতে। সহিংসতার ঘটনায় রাজধানীর বিভিন্ন থানায় এ পর্যন্ত ১৪৯টি মামলা হয়েছে বলে ডিএমপি কমিশনার জানান। দুটি মামলায় খালেদা জিয়াকে হুকুমের আসামি করা হয়েছে, বাকি মামলাগুলোতে কি তা করা হবে কি না- জানতে চাইলে তিনি বলেন, তদন্তে প্রমাণ পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যারা নাশকতা করছে তাদের প্রতি হুশিয়ারি উচ্চারণ করে কমিশনার বলেন, সবাই জানে কাদের ইন্ধনে, কাদের নির্দেশে দেশে নাশকতা হচ্ছে। যারা এই প্রিয় মাতৃভূমিকে অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করছে, অবরোধের নামে জ্বালিয়ে-পুড়িয়ে মানুষ মারছে, নাশকতা করছে সে যেই হোক না কেন তাকে আইনের আওতায় আনা হবে।

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...