ছবি সংগৃহীত

স্বৈরাচারী আওয়ামী সরকার গণতন্ত্রকে হত্যা করেছে: মির্জা ফখরুল

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ঈদ ও পূজা কোনোটাই ভালোভাবে পালন করতে পারছে না বাংলাদেশের মানুষ। স্বৈরাচারী আওয়ামী সরকার দেশের গণতন্ত্রকে হত্যা করে অর্থনীতিকে পঙ্গু করেছে। ফলে দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন গতির কারণে মানুষ এখন অসহায়।

priyo.com
লেখক
প্রকাশিত: ০৪ অক্টোবর ২০১৪, ১২:৪৯ আপডেট: ১৪ এপ্রিল ২০১৮, ১৭:৫৯
প্রকাশিত: ০৪ অক্টোবর ২০১৪, ১২:৪৯ আপডেট: ১৪ এপ্রিল ২০১৮, ১৭:৫৯


ছবি সংগৃহীত
(প্রিয়.কম) বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ঈদ ও পূজা কোনোটাই ভালোভাবে পালন করতে পারছে না বাংলাদেশের মানুষ। স্বৈরাচারী আওয়ামী সরকার দেশের গণতন্ত্রকে হত্যা করে অর্থনীতিকে পঙ্গু করেছে। ফলে দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন গতির কারণে মানুষ এখন অসহায়। শনিবার বিকেলে ঠাকুরগাঁও শহরের কালীবাড়ীর নিজ বাসভবনে দলীয় নেতাকর্মীদের সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন। এসময় তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের মধ্যে একনায়কতান্ত্রিক চরিত্র রয়েছে। একনায়কতান্ত্রিক চরিত্রের কারণে সরকার ক্ষমতা ধরে রাখতে মামলাকে বড় অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে। আমার নামেই ২৪টি মামলার চার্জশিট দেওয়া হয়ে গেছে। প্রধানমন্ত্রী যেভাবে বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের ওপর দমন-পীড়ন চালাচ্ছেন, তাতে বিশ্বে একনায়কদের যে তালিকা রয়েছে, তাতে শেখ হাসিনা নামটিও লেখা থাকবে। মির্জা ফখরুল বলেন, বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক সংগ্রামের দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে। গণতন্ত্রের ওপর ভর করে মুক্তিযুদ্ধ হয়েছে। স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করে দেশের জনগণ গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছে। আওয়ামী লীগেরও দীর্ঘ গণতান্ত্রিক সংগ্রামের ইতিহাস রয়েছে। গণতন্ত্র বলতে এক সময় আওয়ামী লীগকেই বোঝানো হতো। কিন্তু সেই দলটি ছলচাতুরি করে ক্ষমতা আঁকড়ে ধরে রাখতে গণতন্ত্রকে সংকটে ফেলেছে। তাদের কারণেই গণতন্ত্র আজ মহাসংকটে। তিনি আরও বলেন, কোথাও গেলে সাধারণ মানুষ আমাদের ঘিরে ধরেন। তাঁরা বারবার আমাদের কাছে জানতে চান, এ অবস্থা আর কত দিন চলবে? তাঁরা কবে মুক্তি পাবেন।

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...