কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির। ছবি: সংগৃহীত

আরসিবিসির মামলায় অসুবিধা হবে না: গভর্নর

রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে জনতা ব্যাংকের বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ১৩ মার্চ ২০১৯, ১৬:৫৭ আপডেট: ১৩ মার্চ ২০১৯, ১৬:৫৭
প্রকাশিত: ১৩ মার্চ ২০১৯, ১৬:৫৭ আপডেট: ১৩ মার্চ ২০১৯, ১৬:৫৭


কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ফিলিপিন্সের রিজল কমার্শিয়াল ব্যাংকিং করপোরেশন (আরসিবিসির) ‘মানহানির’ মামলায় কোনো সমস্যা হবে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির। 

১৩ মার্চ, বুধবার রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে জনতা ব্যাংকের বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

চুরি যাওয়া রিজার্ভের অর্থ ফেরত পেতে বাংলাদেশের আইনিব্যবস্থার পাল্টায় আরসিবিসির ‘মানহানির’ মামলা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘গতকাল আমি এ বিষয়টি পত্রিকার মাধ্যমে জেনেছি। এতে কোনো অসুবিধা নেই, মানহানি মামলা তারা করেছে।’

গত ৬ মার্চ আরসিবিসি ফিলিপিন্সের সিভিল কোর্টে বাংলাদেশ ব্যাংকের বিরুদ্ধে মানহানির অভিযোগ এনে একটি মামলা করে বলে মঙ্গলবার বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়।

গভর্নর ফজলে কবির বলেন, ‘তারা (আরসিবিসি) বেকায়দা অবস্থায় আছে আমাদের নিউ ইয়র্কের মামলার জন্য।’

এটি পাল্টা মামলা কি না—এমন প্রশ্নে গভর্নর বলেন, ‘আমাদের পাল্টা মামলা নেই নিউ ইয়র্কের মামলায়। তারা একটি মানহানি মামলা করেছে, মূল মামলা না।’

রিজল ব্যাংকের এই মামলাকে ‘সময়ক্ষেপণের কৌশল’ হিসেবে উল্লেখ করে তাতে বাংলাদেশ উদ্বিগ্ন নয় বলে এর আগে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে সুইফট সিস্টেম ব্যবহার করে ভুয়া বার্তা পাঠিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউ ইয়র্কে (ফেড) রাখা বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসাব থেকে আট কোটি ১০ লাখ ডলার সরিয়ে নেওয়া হয়।

এরপর নিউ ইয়র্কের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক থেকে বাংলাদেশের রিজার্ভের চুরি যাওয়া অর্থ উদ্ধারের আশায় গত ২ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে আরসিবিসির বিরুদ্ধে মামলা করে বাংলাদেশ ব্যাংক। মামলায় বলা হয়, রিজার্ভের অর্থ চুরির কাজে ‘অজ্ঞাতনামা উত্তর কোরীয় হ্যাকারদের’ সহায়তা নেন আসামিরা।

প্রিয় সংবাদ/কামরুল/আজাদ চৌধুরী