টাঙ্গাইল জেলার মানচিত্র

প্রেমিকাকে অনশনে রেখে পরিবারসহ উধাও প্রেমিক

জসিম ও বাড়ির লোকজন পালিয়ে যাওয়ার কারণে এ ঘটনার মীমাংসা হচ্ছে না। জসিমকে পেলেই এ বিষয়ে সমাধান করা হবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় চেয়ারম্যান।

মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৯ জুন ২০১৯, ১৭:৩৯ আপডেট: ১৯ জুন ২০১৯, ১৭:৩৯
প্রকাশিত: ১৯ জুন ২০১৯, ১৭:৩৯ আপডেট: ১৯ জুন ২০১৯, ১৭:৩৯


টাঙ্গাইল জেলার মানচিত্র

(প্রিয়.কম) টাঙ্গাইলের সখীপুরে বিয়ের দাবিতে তিন দিন ধরে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন করছেন মৌসুমা নিশি নামে এক তরুণী। ১৭ জুন, সোমবার উপজেলার পাথারপুর গ্রামের মালদ্বীপ প্রবাসী প্রেমিক জসিম উদ্দিনের বাড়িতে ওঠেন ওই তরুণী।

প্রেমিকা বাড়িতে ওঠার পর ঘরে তালা দিয়ে পালিয়েছেন প্রেমিকসহ পরিবারের লোকজন। এর আগে প্রেমিক জসিম উদ্দিন ওই তরুণীর হাত থেকে রক্ষা পেতে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সখীপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

জসীম উদ্দিন জিডিতে উল্লেখ করেন, ওই তরুণী বিয়ের দাবিতে বাড়িতে ওঠার আগে মুঠোফোনে হুমকি দেন ও পাঁচ লাখ টাকা দাবি করেন।

তরুণী মৌসুমা নিশি বলেন, জসিম আগে একটি বিয়ে করে বউকে তালাক দিয়েছে। অন্যদিকে আমিও আমার আগের স্বামীর ঘর ছাড়া। এ বিষয়টি আমাদের দুইজনেরই জানা আছে। মালদ্বীপ থেকে সে আমাকে ঢাকায় একটি বাসা ভাড়া নিতে বলে। সেই মোতাবেক দেশে এসে সে আমার ভাড়া বাসায় ওঠে। ঈদের পর গ্রামের বাড়িতে গিয়ে ধুমধাম করে কাবিন ও বিয়ে হবে বলে আমাকে জানায়। আমরা ধর্মীয় গ্রন্থ ছুঁয়ে বিয়ে করেছি। হঠাৎ ঈদর আগের দিন জসিম আমাকে কোনো কিছু না বলেই পালিয়ে আসে ও যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। আমি বাধ্য হয়েই আমার অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য স্বামীর বাড়িতে উঠেছি।

গজারিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান জানান, ‘জসিম ও বাড়ির লোকজন পালিয়ে যাওয়ার কারণে এ ঘটনার মীমাংসা হচ্ছে না। জসিমকে পেলেই এ বিষয়ে সমাধান করা হবে।’

সখীপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমির হোসেন বলেন, মেয়েটিকে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দেওয়াসহ বিষয়টি মীমাংসায় স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। যদি মেয়েটি মামলা করতে চায় তাহলে তাকে সার্বিক সহযোগিতা করা হবে।

প্রিয় সংবাদ/রিমন

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


loading ...