পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ডিআইজি) মিজানুর রহমান। ফাইল ছবি

ডিআইজি মিজানকে পুলিশের হাতে দিল হাইকোর্ট

গ্রেফতার করে শাহবাগ থানায় পাঠাতে নির্দেশ দেওয়া হয়। এরপর পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়।

আমিনুল ইসলাম মল্লিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১ জুলাই ২০১৯, ১৭:২১ আপডেট: ০১ জুলাই ২০১৯, ১৭:২৩
প্রকাশিত: ০১ জুলাই ২০১৯, ১৭:২১ আপডেট: ০১ জুলাই ২০১৯, ১৭:২৩


পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ডিআইজি) মিজানুর রহমান। ফাইল ছবি

(প্রিয়.কম) অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দায়ের করা দুদকের মামলায় সাময়িক বরখাস্ত পুলিশের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মিজানুর রহমানের গ্রেফতার করতে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। তাকে গ্রেফতার করে শাহবাগ থানায় পাঠাতে নির্দেশ দেওয়া হয়। এরপর পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়। মিজানের আগাম জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে এমন আদেশ দেয় হাইকোর্ট।

১ জুলাই, সোমবার  বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এস এম কদ্দুস জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে মিজানের পক্ষে শুনানি করেন মোমতাজ উদ্দিন আহমেদ মেহেদী। অপরদিকে দুদকের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী মো.খুরশীদ আলম খান। জামিন আবেদনের শুনানিতে বহিস্কৃত ডিআইজি মিজানের কর্মকাণ্ডে পুলিশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়েছে বলেও মন্তব্য করে আদালত। এরপর আদালত তাকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠাতে শাহবাগ থানা পুলিশকে নির্দেশ দেয়।

এর আগে গত ৩০ জুন এ মামলায় হাইকোর্টে আগাম জামিন আবেদন করেন বহিস্কৃত ডিআইজি মিজানুর রহমান। তার পক্ষে আবেদনটি দাখিল করেন আইনজীবী মো. আসাদুজ্জামান খান।

উল্লেখ্য, নারী নির্যাতনের অভিযোগে দায়িত্ব থেকে প্রত্যাহার হওয়া মিজানুর রহমানের অবৈধ সম্পদের তদন্ত শুরু করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। কিন্তু এই তদন্ত করতে গিয়ে দুদকের পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছির ৪০ লাখ টাকা ঘুষ নিয়েছেন বলে অভিযোগ ওঠে।

এ ছাড়া গত ১৯ জুন, আদালত এক আদেশে মিজানুর রহমানের স্থাবর সম্পদ ক্রোক এবং ব্যাংক হিসাবের লেনদেন বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছিলে। গত ২৪ জুন তিন কোটি ২৮ লাখ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

প্রিয় সংবাদ/কামরুল