ফেরদৌস আহমেদ ও তার স্ত্রী তানিয়া। ছবি: সংগৃহীত

ভ্রমণ শেষ, এবার কাজে ফেরার পালা ফেরদৌসের

পরিবারের সদস্যদের নিয়ে প্রায় দুই সপ্তাহ দেশের বাইরে ছিলেন নায়ক ফেরদৌস। তাদের নিয়ে যুক্তরাজ্য, স্কটল্যান্ড ঘুরে দেশে ফিরেছেন তিনি।

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিয়.কম
প্রকাশিত: ০১ জুলাই ২০১৯, ১৭:৫৩ আপডেট: ০১ জুলাই ২০১৯, ১৮:৪৮
প্রকাশিত: ০১ জুলাই ২০১৯, ১৭:৫৩ আপডেট: ০১ জুলাই ২০১৯, ১৮:৪৮


ফেরদৌস আহমেদ ও তার স্ত্রী তানিয়া। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) পেশাজীবন ও ব্যক্তিজীবনের ব্যস্ততায় চলে যায় দিনের বড় একটা সময়। এভাবেই দিনের দিন ঘুরে আসে সপ্তাহ; তারপর মাস এবং পার হয় বছর। নিজেকে আপন করে পাওয়ার সময়ের দেখা মেলা ভার। এবার যখন সেই সুযোগ এলো, তা আর হাতছাড়া করেননি দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেতা ফেরদৌস আহমেদ। স্ত্রী ও দুই কন্যা নুযহাত ও নামিরাসহ যুক্তরাজ্যে ভ্রমণে গিয়েছিলেন।

প্রায় দুই সপ্তাহের ভ্রমণ পর্ব শেষে গত পরশু দেশে ফিরেছেন ফেরদৌস আহমেদ। এখন নতুন উদ্যমে কাজে ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছেন তিনি।

প্রিয়.কমকে ফেরদৌস আহমেদ বলেন, ‘অনেকদিন হয় লং টাইমের ভ্যাকেশনে যাওয়া হয় না। টানা কাজ করতে করতে নিজেকে আর সময় দেওয়া হচ্ছিল না। গত ঈদের আগে কোথাও যাওয়া হয়নি। ঈদের পর যখন আমার স্ত্রী ছুটি পেল। এরপরই আমরা ইংল্যান্ড ট্যুরের প্ল্যান করে ফেললাম। ইচ্ছে ছিল সেখানে গিয়ে বাংলাদেশের একটি ম্যাচ দেখব। সেটাও দেখেছি।’

ফেরদৌস জানান, সাউদাম্পটনে বাংলাদেশ আর আফগানিস্তানের ম্যাচ গ্যালারিতে বসে দেখেছেন। ঝুলিতে ভরেছেন নতুন এক অভিজ্ঞতা। তিনি বলেন, ‘এর আগে কখনো বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশের খেলা দেখিনি। তার ওপর ওয়ার্ল্ড কাপ। সে ম্যাচ আবার বাংলাদেশ জিতেছে। দেশের বাইরে গিয়ে যখন দেখি খেলার মাঠে দেশের জাতীয় সংগীত বাজে, সে অনুভূতিটা যে কেমন, তা বুঝাতে পারব না।’

১৯১২ সালে যুক্তরাজ্যের সাউদাম্পটন বন্দর থেকেই নিউইয়র্কের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেছিল টাইটানিক জাহাজ। এরপরের ট্র্যাজেডি সবার জানা। সেই ঘটনার একশ বছর পেরিয়ে গেলেও তাদের নানাভাবে স্মরণে রেখেছে শহরটি। সেখানে ঐতিহাসিক সি সিটি মিউজিয়ামে নানা আয়োজনে সংরক্ষণ করে রাখা হয়েছে টাইটানিকের আদ্যোপান্ত। সে সব জায়গায়ও ঘুরেছেন ফেরদৗস ও তার পরিবারের সদস্যরা।

সেখান থেকে স্কটল্যান্ডে পাড়ি জমান, ছিলেন তিন দিন। ফেরদৌস বলেন, ‘স্কটল্যান্ড খুবই সুন্দর একটা দেশ। বেশ কিছু সুন্দর সুন্দর জায়গাতে আমরা ঘুরেছি পরিবারের সবাইকে নিয়ে। দারুণ মজাও হয়েছে। এই ব্রেকটা খুব দরকার ছিল। মাঝখানে নানান কারণে বেশকিছু বিষয়ে বেশ টেনশনে ছিলাম। এখন আবার নতুন উদ্যমে সব কাজ শুরু হবে।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের উপন্যাস ‘গাঙচিল’ উঠে আসছে রুপালি পর্দায়। জনপ্রিয় দুই চিত্রতারকা ফেরদৌস-পূর্ণিমাকে নিয়ে এ ছবিটি বানাচ্ছেন নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামূল।

নুজহাত ফিল্মস প্রযোজিত এ ছবিটির মধ্য দিয়েই বিরতির পর শুটিংয়ে ফিরছেন ফেরদৌস। এ মাসের ৯ কিংবা ১০ তারিখে শুটিং শুরু হবে। এ ধাপের একটা অংশের কাজ হবে ঢাকায়।

সম্প্রতি ফেরদৌস ‘যদি আরেকটু সময় পেতাম’ নামে একটি ছবির কাজ শুরু করেছিলেন। এটি ঢাকাসহ বিভিন্ন জায়গায় শুটিং হওয়ার কথা। ঢাকায় বেশকিছু অংশের কাজ আগেই হয়েছিল। ইংল্যান্ডে ঘোরাঘুরির ফাঁকে ফেরদৌস তার এ ছবির বাকি অংশের কাজটুকুও সেরে এসেছেন।

এ ছবিটি নির্মাণ করছেন বাংলাদেশের জি এম ফারুক। এতে ফেরদৌসের বিপরীতে অভিনয় করছেন যুক্তরাজ্যের নায়িকা সেলিন বেরান।

প্রিয় বিনোদন/মিঠু/রিমন