পয়েন্ট তালিকার অষ্টম অবস্থানে থেকে বিশ্বকাপ মিশন শেষ করেছে বাংলাদেশ। ছবি: সংগৃহীত

বিশ্বকাপ থেকে কত কোটি টাকা পাচ্ছে বাংলাদেশ?

লিগ পর্ব থেকে বিদায় নিলেও ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) কাছ থেকে বড় অঙ্কের প্রাইজমানি পাচ্ছে বাংলাদেশ দল।

মুশাহিদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ০৭ জুলাই ২০১৯, ১৪:৫৮ আপডেট: ০৭ জুলাই ২০১৯, ১৪:৫৮
প্রকাশিত: ০৭ জুলাই ২০১৯, ১৪:৫৮ আপডেট: ০৭ জুলাই ২০১৯, ১৪:৫৮


পয়েন্ট তালিকার অষ্টম অবস্থানে থেকে বিশ্বকাপ মিশন শেষ করেছে বাংলাদেশ। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) সেমিফাইনালে খেলার লক্ষ্য নিয়ে এবারের বিশ্বকাপে অংশ নিয়েছিল বাংলাদেশ। কিন্তু বিদায় নিতে হয়েছে লিগ পর্ব থেকেই। লিগ পর্বের ৯ ম্যাচের মধ্যে মাত্র তিনটিতে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। এ ছাড়া একটি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয় বৃষ্টিতে। সবমিলিয়ে ৭ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার অষ্টম অবস্থানে থেকে বিশ্বকাপ মিশন শেষ হয়েছে মাশরাফি-সাকিব-তামিমদের।

লিগ পর্ব থেকে বিদায় নিলেও ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) কাছ থেকে বড় অঙ্কের প্রাইজমানি পাচ্ছে বাংলাদেশ দল। কেননা লিগ পর্বের প্রতিটি ম্যাচে জয়ী দলের জন্য প্রাইজমানি হিসেবে ৪০ হাজার ডলার বরাদ্দ রেখেছিল আইসিসি। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় ৩৪ লাখ।

সেই হিসাবে লিগ পর্বে তিন জয়ের কারণে ১ লাখ ২০ হাজার ডলার পাচ্ছে বাংলাদেশ। অর্থাৎ দক্ষিণ আফ্রিকা, উইন্ডিজ ও আফগানিস্তানকে হারিয়ে বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ১ কোটি দেড় লাখ টাকা পাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

এখানেই শেষ নয়। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়া ম্যাচ থেকেও অর্থ পাচ্ছে বিসিবি। বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার ম্যাচটি মাঠে না গড়ালেও বিসিবি পাবে ২০ হাজার ডলার। বাংলাদেশ মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় ১৭ লাখ টাকা। কারণ ম্যাচের প্রাইজমানি হিসেবে বরাদ্ধ থাকা ৪০ হাজার ডলার দুই দলের মধ্যে সমানভাবে ভাগ করে দেবে আইসিসি।

নির্ধারিত প্রাইজমানি ছাড়াও লিগ পর্ব থেকে বিদায় নেওয়া প্রতিটি দলকে অতিরিক্ত ১ লাখ ডলার করে দেবে বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা। টাকার অঙ্কে যার পরিমাণ প্রায় সাড়ে ৮৪ লাখ টাকা। এই টাকাও যোগ হবে ক্রিকেট বোর্ডের প্রাপ্তি তালিকায়। সবমিলিয়ে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ থেকে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের তহবিলে জমা পড়ছে ২ কোটি টাকার বেশি।

সেমিফাইনালের লড়াইয়ে টিকে থাকতে ভারতের বিপক্ষে জয় ছাড়া ভিন্ন কোনো বিকল্প ছিল না বাংলাদেশের সামনে। কিন্তু বাঁচা-মরার এই ম্যাচটিকে প্রায় নিজেদের করে নিতে পারেনি বাংলাদেশ। বল হাতে মুস্তাফিজুর রহমানের পাঁচ উইকেট এবং ব্যাট হাতে সাকিব আল হাসান ও মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের জোড়া হাফ সেঞ্চুরির পরও বাংলাদেশের সঙ্গী হয় ২৮ রানের পরাজয়।

বিশ্বকাপে নিজেদের অষ্টম ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে হেরেই শেষ হয়ে যায় মাশরাফি-সাকিবদের সেমিফাইনাল খেলার স্বপ্ন। পাকিস্তানের বিপক্ষে লিগপর্বের শেষ ম্যাচটি ছিল স্রেফ আনুষ্ঠানিকতা। নিয়মরক্ষার সেই ম্যাচে ঐতিহাসিক লর্ডস ক্রিকেট গ্রাউন্ডে মুখোমুখি হয় দুই দল। এই ম্যাচটিও জয় দিয়ে রাঙাতে পারেনি বাংলাদেশ। গেল ৫ জুলাই পাকিস্তানের বিপক্ষে ৯৪ রানের হেরে বিশ্বকাপ মিশন শেষ করেছে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল।

প্রিয় খেলা/রিমন

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


loading ...