আটক ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা। ছবি: সংগৃহীত

ওসির কাছে চাঁদা দাবি, ছাত্রলীগের চার নেতা-কর্মী আটক

‘থানায় এসে ২০ হাজার টাকার পরিবর্তে দুই লাখ টাকার জন্য চাপ দেওয়ায় তাদের আটক করা হয়।’

হাসান আদিল
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২৫ জুন ২০১৮, ১০:২৭ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ২২:৩২
প্রকাশিত: ২৫ জুন ২০১৮, ১০:২৭ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ২২:৩২


আটক ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ময়মনসিংহে পুলিশের কাছে চাঁদা দাবির অভিযোগে ছাত্রলীগের চার নেতা-কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতরা নান্দাইল উপজেলা, পৌর ও কলেজ কমিটি ছাত্রলীগের সাবেক নেতা-কর্মী।

২৪ জুন, রবিবার তাদের আটক করা হয়।

আটক ব্যক্তিরা হলেন, উপজেলা ছাত্রলীগে সাবেক জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি রাজু আহমেদ, সাংগাঠনিক সম্পাদক মাহমুদুল হাসান রয়েল, পৌর কমিটির সাধারণ সম্পাদক টিটু ও কলেজ ছাত্রলীগের সদস্য কামরুল হাসান।

গৌরীপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাকের হোসেন সিদ্দিকী জানান, ২৪ জুন সকালে ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ওয়াহিদুল আলম ফয়সাল টেলিফোনে নান্দাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম মিয়ার কাছে ঈদের কথা বলে ২০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন।

পরে টাকা নিতে আটক ওই চার নেতা-কর্মীকে থানায় পাঠান ফয়সাল। ওই চারজন থানায় গিয়ে টাকার জন্য ওসিকে চাপ দেন। এক পর্যায়ে পুলিশ ওই চারজনকে আটক করে।

আটক ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের ময়মনসিংহ থেকে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিম নান্দাইল থানা থেকে জেলা অফিসে আনেন।

নান্দাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ইসলাম মিয়া বলেন, ‘থানায় এসে ২০ হাজার টাকার পরিবর্তে দুই লাখ টাকার জন্য চাপ দেওয়ায় তাদের আটক করা হয়।’

নান্দাইল উপজেলা ছাত্রলীগের বর্তমান কোনো কমিটি নেই। সাবেক কমিটির নেতা-কর্মীরাই উপজেলা ছাত্রলীগ নিয়ন্ত্রণ করছে বলে জানিয়েছেন গৌরীপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাকের হোসেন সিদ্দিকী।

প্রিয় সংবাদ/বিভাগীয় প্রতিনিধি/রুহুল