বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক হোসেন। ছবি: সংগৃহীত

কোটা সংস্কার আন্দোলনের ফারুকসহ তিনজন কারাগারে

৩ জুলাই, মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে তাদের তিনজনকে হাজির করে পুলিশ।

জনি রায়হান
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩ জুলাই ২০১৮, ১৮:৪২ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ২১:০০
প্রকাশিত: ০৩ জুলাই ২০১৮, ১৮:৪২ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ২১:০০


বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক হোসেন। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনে হামলার ঘটনায় বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক হোসেনসহ তিনজনকে গ্রেফতার করে অাদালতে পাঠানো হয়েছে।

৩ জুলাই, মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে তাদের তিনজনকে হাজির করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত বাকি দুজন হলেন তরিকুল ইসলাম (২২) জসিম উদ্দিন (২১)।

কোটা সংস্কার আন্দোলনের সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনে হামলা, গাড়ি পোড়ানো ও নাশকতার অভিযোগে শাহবাগ থানায় দায়ের করা দুই মামলায় তাদের গ্রেফতার করা হয়। আদালতে হাজির করার পরে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতের বিচারক সুব্রত ঘোষ শুভ শুনানি শেষে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।

ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা (জিআরও) মাহমুদুর রহমান বিষয়টি জানিয়েছেন। তিনি জানান, আজ (মঙ্গলবার) দুপুরে ওই মামলার তদন্তকারী ডিবির পরিদর্শক বাহাউদ্দীন ফারুকী আসামিদের আদালতে হাজির করে তাদের কারাগারে রাখার আবেদন করেছিলেন। এরপর আদালত তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে।

এর আগে ফারুক হোসেনের বড় ভাই আরিফুল ইসলাম সাংবাদিকের জানিয়েছেন, ফারুককে গতকাল মারধরের পর শহিদ মিনার থেকে শাহবাগ থানায় দেওয়া হয়েছিল বলে তাকে জানানো হয়। তবে ফারুকের খোঁজ জানতে শাহবাগ, রমনা ও নিউমার্কেট থানা, ডিবি পুলিশ ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টরের কাছে গিয়েও কিছু জানতে পারেননি তিনি। অবশেষে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানোর সময় ছোট ভাই ফারুকের খোঁজ পেয়েছেন তিনি।

সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে চলমান আন্দোলনের সময় চলতি বছরের ৯ এপ্রিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বাসভবনে হামলা চালানো হয়েছিল। এ সময় ভিসির বাসভবনে নারকীয় হামলা করা হয়েছিল। ঘরের জিনিসপত্র ভাঙচুরসহ অগ্নিসংযোগও করা হয়েছিল বাসভবনে। ওই ঘটনায় শাহবাগ থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছিল।

প্রিয় সংবাদ/আজাদ চৌধুরী