কালিমা

তাকদীর কী?

কোনো জিনিসই তাকদীরের বাইরে নয়। তবে তাকদীর মানুষের কাজের কারণ হয় এবং তাকদীর লিপিবদ্ধ আছে বলেই মানুষ ভালমন্দ কাজ করছে বিষয়টি এমনও নয়।

মিরাজ রহমান ২৪ মে ২০১৭, ১১:৩৫

ঈমান, আমল ও ইহসানের পরিচয়

ঈমান আরবি শব্দ। এর শাব্দিক অর্থ হলো বিশ্বাস। ঈমান অর্থ হলো, শরীয়তের যাবতীয় হুকুম-আহ্কাম অন্তর দিয়ে বিশ্বাস করা এবং এগুলোকে নিজের দীন বা ধর্ম হিসেবে বরণ করে নেওয়া।

মিরাজ রহমান ১০ মে ২০১৭, ০৪:১৬

আখিরাত কি এবং কেমন হবে তখনকার পরিবেশ-পরিস্থিতি

আখিরাতের প্রতি বিশ্বাস স্থাপন করা ইসলামের মৌলিক আকিদাসমূহের মধ্যে অন্যতম। আখিরাতের প্রতি বিশ্বাস ছাড়া ঈমান বিশুদ্ধ বা পরিপূর্ণ হয় না।

মিরাজ রহমান ০৯ মে ২০১৭, ০৬:৫৫

অসংখ্য মাখলুকাত সৃষ্টির রহস্য

মানব সৃষ্টির মূল রহস্য হলো ইবাদত ও বন্দেগী। মানুষ ও জিন ছাড়া অন্যান্য সৃষ্টির রহস্য ও উদ্দেশ্য হলো মানুষের কল্যাণ ও সহযোগিতা।

মিরাজ রহমান ০৩ মে ২০১৭, ০৬:৪৮

তাওহীদ বা একত্ববাদ কী?

তাওহীদ ইসলামের একটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। তাওহীদ বা একত্ববাদের বিশ্বাস ছাড়া পরিপূর্ণ মুসলিম বা মুমিন হওয়া সম্ভব না।

মিরাজ রহমান ০২ মে ২০১৭, ০৭:০১

কী নামে ডাকি যে তোমায়!

যারা আল্লাহর নামের প্রকৃত অর্থ ছেড়ে এদিক-সেদিকের বানোয়াট ও ধারণাপ্রসূত অর্থ ও ব্যাখ্যাবিশ্লেষণ জুড়ে দেয় এবং কুরআনের অর্থ গ্রহণে যুক্তি ও বাঁকা চালের আশ্রয় নেয়, তাদের ব্যপারটা ছেড়ে দেওয়াই কর্তব্য। কারণ, তারা যে বাঁকামী এখন করছে, এর প্রতিফল তারা কড়ায়-গণ্ডায় পেয়ে যাবে।

মাওলানা সাঈদ কাদির ০২ মার্চ ২০১৬, ০২:৩৬

বিদআতী কাজ বা আমলে যুক্ত থাকার পরিণতি

সাধারণ অর্থে সুন্নাতের বিপরীত বিষয়কে বিদ‘আত বলা হয়। আর শার‘ঈ অর্থে বিদআত হলো: ‘‘আল্লাহর নৈকট্য হাসিলের উদ্দেশ্যে ধর্মের নামে নতুন কোনো প্রথা বা ‘ইবাদাতের প্রচলন করা, যা শরী‘আতের কোনো সহীহ দলীল-প্রমাণের উপর ভিত্তিশীল নয়।” (আল ই‘তিসাম ১/১৩ পৃষ্ঠা)।

মিরাজ রহমান ৩১ জানুয়ারি ২০১৬, ০৪:৩৮

১৫টি বিদআতী কাজ যার সাথে শরীআতের কোনো সম্পর্ক নেই

একজন খাঁটি মুসলিম কোনো আমল সম্পাদনের পূর্বে অবশ্যই পরীক্ষা-নীরিক্ষা করে দেখবে যে, তার কৃত আমলটি কুরআন ও সহীহ সুন্নাহ দ্বারা প্রমাণিত কি-না। কিন্তু আমাদের দেশের সহজ-সরল ধর্মপ্রাণ মানুষ এমন অনেক কাজ বা আমলের সাথে নিজেকে সম্পৃক্ত করে রেখেছেন, যার সাথে শরী‘আতে মুহাম্মাদীর কোনোই সম্পর্কে নেই।

মিরাজ রহমান ৩০ জানুয়ারি ২০১৬, ০৩:০৯

রাসুল [সা.]-কে মনে প্রাণে ভালোবাসা ও আনুগত্য করার উত্তম পদ্ধতি

মহান আল্লাহকে মনেপ্রাণে ভালোবাসার উত্তম পদ্ধতি হলো-খালেস অন্তরে আল্লাহ তা‘আলার যাবতীয় হুকুম-আহকাম দ্বিধাহীনচিত্তে মেনে নিয়ে তাঁর আনুগত্য করা এবং রাসূল সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর পরিপূর্ণ অনুসরণ করা।

মিরাজ রহমান ২৮ জানুয়ারি ২০১৬, ০৪:০৪

ঈমান ধ্বংসকারী ১০ বিশ্বাস ও কাজ

এ বিশ্বাস করা যে, অন্যের আদর্শ নবী (সা.) এর আদর্শের চেয়ে অধিক পূর্ণাঙ্গ। কিংবা এ বিশ্বাস করা যে, অন্যের বিধান নবী (সা.) এর বিধান অপেক্ষা অধিক উত্তম। যেমন কেউ কেউ যদি তাগুতের বিধানকে নবীর বিধানের ওপর শ্রেষ্ঠত্ব দিয়ে থাকে সে ব্যক্তি কাফের বলে গণ্য হবে।

priyo.Islam ২৮ জানুয়ারি ২০১৬, ০৩:৫৩

loading ...